শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানে মডেল মসজিদ নির্মাণের প্রতিবাদ

প্রকাশ: ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

কিশোরগঞ্জ অফিস

কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ময়দানের প্রায় ৪৩ শতাংশ জায়গার ওপর নির্মাণ করা হচ্ছে মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র। গত ২২ জুলাই আনুষ্ঠানিকভাবে শোলাকিয়া ময়দান মডেল মসজিদের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করেছেন জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী। গণপূর্ত বিভাগের বাস্তবায়নে শোলাকিয়া ময়দানে এই মডেল মসজিদ নির্মাণ নিয়ে এলাকাবাসীসহ নানা শ্রেণি-পেশার মানুষের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

শোলাকিয়া ময়দানকে সংকুচিত করে মডেল মসজিদ নির্মাণের প্রতিবাদ এবং ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহের ঐতিহ্য রক্ষার দাবিতে সরব হয়েছেন স্থানীয়রা। এ নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। এসব কর্মসূচি থেকে মডেল মসজিদটি অন্যত্র নির্মাণের মাধ্যমে শোলাকিয়া ময়দানের ঐতিহ্য ও মর্যাদা রক্ষার দাবি জানানো হচ্ছে। শনিবার এ ব্যাপারে মতবিনিময় সভার আয়োজন করে কিশোরগঞ্জ নাগরিক অধিকার সুরক্ষা মঞ্চ। দুপুরে জেলা পাবলিক লাইব্রেরি মিলনায়তনে মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন শহরের আজিম উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোকাররম হোসেন শোকরানা। এতে স্বাগত বক্তব্য দেন কিশোরগঞ্জ নাগরিক অধিকার সুরক্ষা মঞ্চ আহ্বায়ক কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান শেখ সেলিম কবির। এতে অন্যদের মধ্যে জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মিয়া মোহাম্মদ ফেরদৌস, কিশোরগঞ্জ পৌরসভার সাবেক মেয়র মো. আবু তাহের মিয়া, প্রবীণ শিক্ষক আবু খালেদ পাঠান প্রমুখ বক্তব্য দেন।

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী জানান, ২০১৭ সালে মডেল মসজিদের জন্য স্থানটি নির্বাচন করা হয়। শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠ পরিচালনা কমিটিও সভা করে এ ব্যাপারে একই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।