মানুষ সামাজিক জীব। তাই তো একে অপরের ওপর নির্ভরশীল হতে হয়। আজ হয়তো সমাজের বিত্তবান শ্রেণির মানুষ কারণে-অকারণে খাবার অপচয় করছেন। বিয়েবাড়ি অথবা কোনো অনুষ্ঠানেও খাবার নষ্ট হয়। কিন্তু সেখানে গরিব, অসহায় লোক খাবার চাইলে তাদের দেওয়া হয় না।

বর্তমান সময়েও আশপাশের কত মানুষ এখনও অভুক্ত থাকে। তাদের খবর কতজনই বা রাখে! চোখ বন্ধ করে একবার উপলব্ধি করুন, আপনি কত শান্তিতে আছেন। কিন্তু যাদের ঘরবাড়ি নেই; ফুটপাতে যাদের জীবনযাপন; একবেলা দু'মুঠো অন্নের জন্য যাদের দিনরাত কষ্ট করতে হয়। অথবা বাড়ির পাশের লোকেরই বা ক'দিন খবর নিয়েছেন! আজ আপনাদের সব আছে। তাই তাদের কথা একবারও ভাবার সময় পান না। আসলে মানুষের পদোন্নতি হলে গরিবের কথা আর মনে থাকে না। হয়তো আপনিও একদিন অসহায় ছিলেন। মা-বাবা অনেক কষ্ট করে লালন-পালন করে বিত্তবান বানিয়েছেন, কিন্তু মানুষের মতো মানুষ নয়। তাই তো সমাজের অনেক বিত্তবান অপচয় করবে, কিন্তু গরিবের দিকে ফিরেও দেখে না বা কখনও ভাবে না সমাজের গরিব-দুঃখীর কথা। আমরা চাইলেই সমাজের এই অবহেলিত, লাঞ্ছিত, গরিব-দুঃখীর পাশে দাঁড়াতে পারি। তাই খাবার অপচয় করবেন না। না খেতে পারলে ক্ষুধার্তদের দান করা উচিত। অন্তত আপনাদের সাহায্যেই তাদের একবেলা দিব্যি কেটে যাবে। আসুন, মানবিক হই এবং অন্যকেও উৎসাহিত করি।

শিক্ষার্থী, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান

ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গোপালগঞ্জ

মন্তব্য করুন