বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক বলেছেন, কর্তৃত্ববাদী জবরদস্তির শাসনের অবসান ঘটিয়ে দেশের গণতান্ত্রিক অভিযাত্রা নিশ্চিত করতে হবে। এ লক্ষ্যে সব গণতান্ত্রিক শক্তির রাজপথের ঐক্য জোরদার করতে হবে। গণতান্ত্রিক শক্তি ও জনগণের বৃহত্তর ঐক্য ছাড়া সরকারের গণবিরোধী তৎপরতা প্রতিরোধ করা যাবে না।

গতকাল শনিবার রাঙামাটিতে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির জেলা কার্যালয় প্রাঙ্গণে দলের কর্মী ও শুভার্থী সমাবেশে সাইফুল হক এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, সরকার মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে রাজনৈতিক পুঁজি হিসেবে ব্যবহার করছে। বাস্তবে তারা মুক্তিযুদ্ধের গণতান্ত্রিক চেতনার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে নির্যাতন-নিপীড়নের স্বৈরতান্ত্রিক পথে দেশ পরিচালনা করছে।

তিনি বলেন, সরকার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনসহ নানা নিবর্তনমূলক কালাকানুনকে নিজেদের রক্ষাকবচ হিসেবে ব্যবহার করছে। কিন্তু ইতিহাসের সাক্ষ্য হচ্ছে, কোনো কালাকানুনই অতীতে কোনো শাসনকে জনরোষ থেকে রক্ষা করতে পারেনি। নিপীড়নমূলক কালাকানুনও শেষ পর্যন্ত বর্তমান সরকারকে রক্ষা করতে পারবে না। অনতিবিলম্বে জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকারের পরিপন্থি সব আইন বাতিল করার আহ্বান জানান তিনি।

বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির রাঙামাটি জেলা সভাপতি আবুল হাশেমের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য দেন দলের কেন্দ্রীয় নেতা বহ্নিশিখা জামালী, আকবর খান, আনছার আলী দুলাল, স্নিগ্ধা সুলতানা ইভা, জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক নির্মল বড়ুয়া মিলন, জুঁই চাকমা, আবদুল মান্নান রানা প্রমুখ।

মন্তব্য করুন