তিন দিন পর ফেরি চালু দুই নৌরুটে

প্রকাশ: ২৩ মে ২০২০

মুন্সীগঞ্জ ও শিবালয় (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি

ঈদে ঘরমুখো মানুষের সুবিধার্থে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী ও পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুট দিয়ে যাতায়াতের নিষেধাজ্ঞা শিথিল করা হয়েছে। তবে শর্ত, স্বাস্থ্যবিধি মেনে পদ্মা পাড়ি দিতে হবে যাত্রীদের। করা যাবে না হুড়োহুড়ি। টানা তিন দিন পর বৃহস্পতিবার রাতে ফেরি সার্ভিস চালু করা হলেও গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে শিমুলিয়া ও পাটুরিয়া ঘাটে যাত্রীদের ভিড় দেখা যায়। করোনা সংক্রমণ রোধে গত সোমবার বিকেল থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়।

শিমুলিয়া ঘাটে সরেজমিন দেখা যায়, ফেরি সার্ভিস চালুর পর থেকে ব্যক্তিগত যানবাহন পারাপারে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। সকাল থেকে ১২টি ফেরি দিয়ে যাত্রী ও যানবাহন পারাপার করা হয়। তবে ঘাট এলাকায় ভিড় করতে দেওয়া হচ্ছে না। তারপরও সচেতনতার অভাবে ফেরিতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার কোনো দৃশ্য দেখা যায়নি।

মুন্সীগঞ্জের পুলিশ সুপার আবদুল মোমেন জানান, ঈদ ঘরমুখো যাত্রীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফেরি পার হওয়ার বিষয়টিকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। এ ছাড়া ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেস সড়কের চেকপোস্টগুলোতে পুলিশ সদস্যরা যাত্রীদের এ ব্যাপারে সতর্ক করছেন।

শিমুলিয়া ঘাটের বিআইডব্লিউটিসির এজিএম শফিকুল ইসলাম জানান, শুক্রবার দুপুরে শিমুলিয়া ঘাটে ১৫০টি ট্রাক ও প্রায় শতাধিক যাত্রীবাহী ছোট গাড়ি ছিল।

এদিকে পাটুরিয়া ঘাটে সরেজমিন দেখা গেছে, দৌলতদিয়াগামী ফেরির চেয়ে ইঞ্জিনচালিত ট্রলারে যাত্রী পার হচ্ছেন বেশি। তবে ফেরিতেও যাত্রীদের ভিড় দেখা যায়। গত কয়েক দিন ধরে ফেরিতে যাত্রীরা গাদাগাদি করে পার হওয়ার কারণে প্রশাসন দু'একটি ফেরি দৌলতদিয়া ঘাটে ভিড়তে না দেওয়ায় যাত্রীরা ট্রলারে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নদী পাড়ি হচ্ছেন।