মোহাম্মদপুরে স্কুলছাত্র মহসীন খুন

পারভেজ জাপটে ধরে ছুরি চালায় সুমন

প্রকাশ: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সমকাল প্রতিবেদক

রাজধানীর মোহাম্মদপুরে স্কুলছাত্র মহসীন আলী হত্যায় জড়িত অভিযোগে এ পর্যন্ত নয়জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এর মধ্যে সর্বশেষ দফায় গ্রেফতার পাঁচজনকে গতকাল সোমবার তিন দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়। জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানিয়েছে, ঘটনার সময় 'আতঙ্ক' গ্রুপের সদস্য পারভেজসহ কয়েকজন মহসীনকে জাপটে ধরে রাখে। আসিফ ও রকি তাকে মারধর করে। একপর্যায়ে সুমনসহ তিন-চারজন তাকে ছুরি ও চাপাতি দিয়ে কোপায়। হত্যায় অংশ নেওয়া পারভেজ ও সুমনকে এখনও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

মোহাম্মদপুর থানার ওসি গণেশ গোপাল বিশ্বাস সমকালকে বলেন, হত্যার কারণ সম্পর্কে এরই মধ্যে নিশ্চিত হওয়া গেছে। জড়িত দু'জন নিজেদের অপরাধ স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দিও দিয়েছে। এখন একে একে বাকি আসামিদের গ্রেফতার করা হচ্ছে। এ পর্যন্ত এজাহারভুক্ত চার আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের নাম উঠে এসেছে তদন্তে। গত বুধবার সন্ধ্যায় মোহাম্মদপুরের সাত মসজিদ হাউজিং এলাকার পাইওনিয়ার কলেজ সংলগ্ন মুদি দোকানের সামনে আড্ডা দিচ্ছিল মহসীন ও তার বন্ধুরা। এ সময় 'আতঙ্ক' নামে একটি কিশোর গ্যাংয়ের প্রায় ৩০ জন তাদের ওপর হামলা চালায়। এতে গুরুতর আহত চারজনের মধ্যে মহসীন পরে মারা যায়। পুলিশ বলছে, আতঙ্ক গ্রুপের হামলায় হতাহতরা 'ফিল্ম ঝিরঝির' নামে আরেকটি কিশোর দলের সদস্য।

মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদপুর থানার এসআই ফারুক হোসেন জানান, মহসীন হত্যায় জড়িত পাঁচজনকে গতকাল আদালতে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়। শুনানি শেষে দু'দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।