লন্ডনে বাংলাদেশ বইমেলা শুরু

প্রকাশ: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সৈয়দ আনাস পাশা, লন্ডন

সারা বিশ্বে ছড়িয়ে আছে প্রবাসীদের তৈরি করা টুকরো টুকরো বাংলাদেশ, সেগুলোর পারস্পরিক সংযোগ সৃষ্টি করে দেয় বই আর বইমেলা। সম্মিলিত সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদের উদ্যোগে রোববার লন্ডনে শুরু হওয়া নবম বাংলাদেশ বইমেলা ও সাহিত্য সাংস্কৃতিক উৎসবে এমন অনুভূতি নিয়েই জড়ো হয়েছিলেন শেকড় প্রেমিক প্রবাসীরা।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে উৎসর্গকৃত এ মেলায় অংশ নিয়েছে বাংলা একাডেমি, আগামী প্রকাশনী, অন্যপ্রকাশ, ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশ, আহমেদ পাবলিশিং হাউস, পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স, অনিন্দ্য প্রকাশ, উৎস প্রকাশন, অনার্য পাবলিকেশন্স, পরিজাত প্রকাশনী, পুঁথিনিলয়, নালন্দা, শব্দশৈলী, বাসিয়া প্রকাশনী এবং পাণ্ডুলিপি প্রকাশনসহ বাংলাদেশের মোট ১৭টি প্রকাশনা সংস্থা। এতে রয়েছে বিলাতের বঙ্গবন্ধু বইমেলা, প্রবাস প্রকাশনী, মেট্রোমেঘ, কবিতাস্বজন, স্পন্দনসহ বেশকিছু স্টল। বাংলাদেশ হাইকমিশনের তত্ত্বাবধানে রয়েছে 'বঙ্গবন্ধু মঞ্চ'।

স্থানীয় সময় দুপুরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কিংবদন্তি সাংবাদিক আব্দুল গাফ্‌ফার চৌধুরীর ভিডিও মেসেজের  মাধ্যমে পূর্ব লন্ডনের ব্রাডি আর্টস সেন্টারে মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ছিলেন ব্রিটেনে বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বাংলা বিভাগের চেয়ারম্যান ড. ভীষ্ফ্মদেব চৌধুরী, লেখক ড. শাহাদুজ্জামান, আগামী প্রকাশনীর কর্ণধার ওসমান গণি, সাবেক সরকারি কর্মকর্তা খোন্দকার রাশিদুল হক ও কবি শামীম আজাদসহ আরও অনেক অতিথি। উদ্বোধনের পর সম্মিলিত সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদ যুক্তরাজ্যের সভাপতি ফারুক আহমেদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন বুলবুলের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে অতিথিরা ছাড়াও বক্তব্য দেন সংগঠনের কার্যকরী কমিটির সদস্য ড. মুকিদ চৌধুরী, প্রবীণ সাংবাদিক ইসহাক কাজল, আবুল কালাম আজাদ ছোটন, একেএম আব্দুল্লাহ, কাউন্সিলর সায়েমা আহমেদ ও কাউন্সিলর সুহেল আমীন প্রমুখ।