মাদারীপুরে ছাত্রলীগের দু'পক্ষে উত্তেজনা, আজ আধাবেলা হরতাল

জেলা সাধারণ সম্পাদককে বহিস্কারের জের

প্রকাশ: ২৮ জুলাই ২০১৯      

মাদারীপুর প্রতিনিধি

শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে মাদারীপুর জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তানভীর মাহমুদ আবিরকে বহিস্কার এবং রাজৈর উপজেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন নিয়ে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে সংগঠনের দুই অংশের মধ্যে। তানভীরকে বহাল রাখার দাবিতে আজ রোববার আধাবেলা হরতালের ডাক দিয়েছে ছাত্রলীগের একাংশ। হরতালের সমর্থনে তারা বিক্ষোভ মিছিলও করেছে। অপরদিকে নতুন ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক বায়েজিদ হাওলাদারের সমর্থকরা আনন্দ মিছিল ও মিষ্টি বিতরণ করেছে। এ নিয়ে দু'পক্ষের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা করছে স্থানীয়রা। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী বলছে, অপ্রীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টির চেষ্টা করলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

মাদারীপুর জেলা আওয়ামী লীগ দুই ভাগে বিভক্ত। এক গ্রুপের নেতৃত্ব দেন সাবেক নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান। অন্য গ্রুপে রয়েছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম। সদ্য সমাপ্ত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দুই গ্রুপেরই আলাদা প্রার্থী নির্বাচনে অংশ নেন। নির্বাচনে মাদারীপুর জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তানভীর মাহমুদ আবির শাজাহান খানের ছোট ভাই স্বতন্ত্র প্রার্থী অ্যাডভোকেট ওবাইদুর রহমান খানের পক্ষে প্রচার চালান। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে দলীয় আদর্শ ও গঠনতন্ত্র ভঙ্গের অভিযোগ এনে তানভীরকে ছাত্রলীগের দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। একই সঙ্গে জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বায়েজিদ হাওলাদারকে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়। এ ঘোষণার পর গত বৃহস্পতিবার বিকেলে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের রাজৈর এলাকা ও মস্তফাপুর বাসস্ট্যান্ডে রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করে তানভীরের সমর্থকরা।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জাহিদ হোসেন অনিক বলেন, তানভীর মাহমুদ সদ্য সমাপ্ত উপজেলা নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে অবস্থান নেন। এটা হয়তো ভালোভাবে নেয়নি কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। তাই তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। তবে আরেক অংশের নেতা জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি রাশেদ তালুকদার খোকন বলেন, সম্প্রতি  তানভীরকে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী রাজৈর উপজেলা কমিটি গঠনের জন্য সাদা প্যাডে সই করতে বলেছিলেন। তানভীর সেখানে সই করেননি। তাই তাকে প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, কাউকে অব্যাহতি দিতে হলে আগে তাকে সতর্কীকরণ নোটিশ দিতে হয়। সেটা না করে সরাসরি অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। তাই আমরা তানভীরকে পুনর্বহালের দাবিতে আন্দোলন করে যাচ্ছি।

তানভীর মাহমুদ আবিরকে অব্যাহতি দেওয়ায় আজ সকাল ৬টা থেকে ১২টা পর্যন্ত হরতালের ডাক দিয়ে লিফলেট বিতরণ করেছে ছাত্রলীগের একাংশ। এ ছাড়া গতকাল সকালে শহরের প্রায় সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গণসংযোগ ও গণস্বাক্ষর কর্মসূচি পালন এবং হরতালের সমর্থনে একটি মিছিল বের করা হয়।

এদিকে আজ রাজৈর উপজেলা, পৌর ও রাজৈর ডিগ্রি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলন সফল করতে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে নেতাকর্মীরা নানা প্রস্তুতি নিচ্ছেন। যেখানে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন, সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীসহ কেন্দ্রীয় কমিটির একাধিক নেতা উপস্থিত থাকবেন। প্রধান অতিথি থাকার কথা রয়েছে মাদারীপুর-২ আসনের এমপি ও সাবেক নৌমন্ত্রী শাজাহান খানের।

জেলার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার উত্তম প্রসাদ পাঠক বলেন, যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় জেলা পুলিশ প্রস্তুত রয়েছে। আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি দ্রুত দুই গ্রুপের নেতাকর্মীদের সমঝোতার মাধ্যমে পরিস্থিতি শান্ত রাখার।