বাসের ধাক্কায় প্রাণ গেল পুলিশ সদস্যের

ট্রেনে কাটা পড়ে যুবকের মৃত্যু

প্রকাশ: ০৭ জুলাই ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

গভীর রাতে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকায় দায়িত্ব পালন করছিলেন ট্রাফিক পুলিশের এএসআই খায়রুল ইসলাম (৩০)। প্যান্টের একাংশ ছিঁড়ে যাওয়ায় পোশাক বদলাতে যাচ্ছিলেন তিনি। এ সময় বেপরোয়া গতির একটি বাস তাকে ধাক্কা দিলে ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হন। তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। এদিকে, খিলক্ষেতে ট্রেনে কাটা পড়ে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।

পুলিশের ডেমরা জোনের সহকারী কমিশনার সৈয়দ জিয়াউজ্জামান জানান, ডেমরা ট্রাফিক জোনে কর্মরত ছিলেন এএসআই খায়রুল ইসলাম। বাসটি জব্দ করা যায়নি। তবে সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে বাস ও চালককে শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার রাত দেড়টার দিকে পোশাক বদলাতে যাত্রাবাড়ী থানায় যাচ্ছিলেন খায়রুল। থানার সামনে রাস্তা পার হওয়ার সময় নীল রঙের একটি বাস তাকে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যায়। প্রাথমিক তথ্য অনুযায়ী, বাসটি ঢাকা থেকে কিশোরগঞ্জের ভৈরব রুটে চলাচল করে। নিহত খায়রুলের বাবার নাম গোলাম কিবরিয়া। গ্রামের বাড়ি নীলফামারীর চৌগাছিতে। স্ত্রী ও তিন সন্তানকে নিয়ে রাজারবাগের দক্ষিণগাঁও এলাকায় থাকতেন খায়রুল।

ট্রেনে কাটা পড়ে যুবকের মৃত্যু :রাজধানীর খিলক্ষেত এলাকায় ট্রেনে কাটা পড়ে ইমরান হোসেন নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শনিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। নিহতের বাড়ি ঢাকার নবাবগঞ্জে। কাজের সন্ধানে তিনি ঢাকা এসেছিলেন। ময়নাতদন্তের জন্য তার লাশ ঢামেক মর্গে পাঠানো হয়েছে।

বিমানবন্দর পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই দেলোয়ার হোসেন জানান, সকাল ৮টার দিকে খিলক্ষেত ফ্লাইওভারের নিচের রেললাইন দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন ইমরান। এ সময় ঢাকা থেকে বিমানবন্দরমুখী একটি ট্রেনে কাটা পড়েন তিনি। ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। তার বাবার নাম মোহাম্মদ আলী।