শেরপুরে ছাত্রীনিবাস থেকে স্কুলছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার

পরিবারের দাবি হত্যা

প্রকাশ: ০৭ জুলাই ২০১৯      

শেরপুর প্রতিনিধি

শেরপুর শহরের একটি স্কুলের ছাত্রীনিবাস থেকে আনুশকা আয়াত বন্ধন নামে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। স্বজনের দাবি, তাকে হত্যা করা হয়েছে।

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, শহরের সজবরখিলা মহল্লার বেসরকারি ফৌজিয়া মতিন পাবলিক স্কুলের নবম শ্রেণির ওই ছাত্রী নিজ প্রতিষ্ঠানের ছাত্রীনিবাসে থাকত। শনিবার সকালে বন্ধনকে নিজ কক্ষে ওড়না পেঁচানো অবস্থায় ঝুলে থাকতে দেখে এক ছাত্রী। পরে স্কুল কর্তৃপক্ষ তাকে উদ্ধার করে শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালে পাঠায়। এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। বন্ধন শ্রীবরদী উপজেলার পূর্ব ছনকান্দা গ্রামের ওমান প্রবাসী আনোয়ার জাহিদ বাবুল মৃধার মেয়ে। ঘটনা জানার পরপরই মেয়েটির স্বজনরা স্কুলে আসেন। মেয়েটি আত্মহত্যা করেছে বলে স্কুল কর্তৃপক্ষ দাবি করলেও তারা বলেন, তাদের মেয়েকে হত্যা করা হয়েছে। বাবুল মৃধা বলেন, শুক্রবার তিনি মেয়ের সঙ্গে দেখা করেন। সে সময় বন্ধন স্বাভাবিক ছিল। তাই আত্মহত্যার দাবি তিনি মানেন না। কেউ তাকে হত্যা করেছে।

স্কুলের মালিক ও প্রধান শিক্ষক আবু ত্বাহা সাদী বলেন, বন্ধন ছাত্রী নিবাসের দোতলায় থাকত। সকাল ১১টার দিকে তার কক্ষের আরেক ছাত্রী ও সহপাঠী এসে জানায়, বন্ধন সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে ঝুলে আছে। তিনি দ্রুত তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠান। শেরপুর সদর থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল  মামুন বলেন, মেয়েটির গলায় জখমের দাগ আছে। এটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।