ধর্ষণের অভিযোগ

পার্বতীপুরের মেয়রকে গ্রেফতার দাবি

প্রকাশ: ০৭ জুলাই ২০১৯      

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি

পার্বতীপুরের ধর্ষণ মামলার আসামি পৌর মেয়র এজেডএম মেনহাজুল হক ৫ দিনেও গ্রেফতার না হওয়ায় মানববন্ধন করেছে পার্বতীপুর মহিলা জাগরণ সমিতি। গতকাল শনিবার সকাল ১১টার দিকে শহরের শহীদ মিনার সড়কে অবিলম্বে তাকে গ্রেফতারের দাবিতে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রুকসানা বারী রুকু, সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক সুলতানা নাসরিন, উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি নাজনিন নাহার নিতু, সাধারণ সম্পাদক রওশন আরা, স্কুলশিক্ষিকা মাহবুবা ইসলাম, জাহানারা বেগম, রুবী বেগম, রেখা প্রমুখ।

এ সময় মেয়রকে অবিলম্বে গ্রেফতার করা না হলে কঠোর কর্মসূচি দেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন বক্তারা।

মামলা সূত্রে জানা যায়, পৌরসভায় মাস্টাররোলে চাকরি দেওয়ার কথা বলে পৌর মেয়র এজেডএম মেনহাজুল হক এক নারীকে ধর্ষণ করে নগ্ন ছবি তুলে রাখেন। ওই ছবি ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে তাকে ধর্ষণ অব্যাহত রাখেন। গত ২৯ জুন মেয়র আবারও পৌরসভায় মাস্টাররোলে চাকরি দেওয়ার কথা বলে ওই নারীকে পৌরসভার কেয়ার অফিস সংলগ্ন স্বাস্থ্যসেবা ক্লিনিকের পাশের পুকুরপাড়ে নিয়ে যান। সেখানে আগে থেকে অবস্থানরত এরশাদ ও রবি ওড়না দিয়ে মুখ বেঁধে ফেলে ওই নারীর। মেয়র তাদের সহায়তায় আবারও ধর্ষণ করেন। পরে ওই নারীকে হত্যার উদ্দেশ্যে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় চাকু দিয়ে রক্তাক্ত করেন। এ ঘটনায় গত ২ জুলাই পার্বতীপুর থানায় পৌর মেয়র, সহযোগী এরশাদ, রবিসহ অজ্ঞাতপরিচয় ৫ জনের নামে মামলা করেন ওই নারী।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পরিদর্শক (তদন্ত) শেখ মোহাম্মদ জুবায়ের মককী বলেন, পৌর মেয়রকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত আছে।