বিএফএফ-সমকাল উদ্যোগ

বিজ্ঞানের শক্তিতে বলীয়ান হও

প্রকাশ: ১৯ এপ্রিল ২০১৯

সমকাল ডেস্ক

বিজ্ঞানের শক্তিতে বলীয়ান হও

গোপালগঞ্জ শেখ হাসিনা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে বৃহস্পতিবার জাতীয় বিজ্ঞান বিতর্ক উৎসবে বিচারকদের সঙ্গে বিজয়ীরা - সমকাল

'বিজ্ঞানের শক্তি দিয়ে দেশকে এগিয়ে নেওয়ার অঙ্গীকার করতে হবে। কারণ সত্যের সন্ধান দেয় বিজ্ঞানই। কিশোর-তরুণরা বিজ্ঞানমনস্ক হলে জাতির মেরুদণ্ড হবে আরও শক্তিশালী। দেশের টেকসই সমৃদ্ধির জন্য বিজ্ঞানের শক্তিতে বলীয়ান হওয়ার কোনো বিকল্প নেই। এই শক্তিতে বলীয়ান হয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে স্বপ্নের কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে।' বাংলাদেশ ফ্রিডম ফাউন্ডেশন (বিএফএফ) ও সমকালের উদ্যোগে এবং সুহৃদ সমাবেশের আয়োজনে গতকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় বিজ্ঞান বিতর্ক উৎসবে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে এসব কথা বলেন অতিথিরা। এদিন নারায়ণগঞ্জ, নরসিংদী, মুন্সীগঞ্জ, গোপালগঞ্জ, রাজবাড়ী ও শরীয়তপুরে জেলা পর্যায়ে উৎসবমুখর পরিবেশে বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। পুরো আয়োজনে বিশেষ সহযোগিতায় রয়েছে প্রফেসর কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স ও পুরস্কার সহযোগী হিসেবে রয়েছে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

নারায়ণগঞ্জ : জেলার আটটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিতার্কিকদের নিয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা গণগ্রন্থাগার অডিটোরিয়ামে বসে বিতর্ক উৎসব। এতে নারায়ণগঞ্জ হাই স্কুল চ্যাম্পিয়ন ও নারায়ণগঞ্জ আই ই টি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় রানার্সআপ হয়েছে। শ্রেষ্ঠ বিতার্কিক হয়েছে চ্যাম্পিয়ন দলের দলনেতা স্বপ্নীল দেব শ্রাবণ।

প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া অন্য বিদ্যালয়গুলো হলো- নারায়ণগঞ্জ আইডিয়াল স্কুল, নারায়ণগঞ্জ বার একাডেমি, বিএম ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়, বন্দর গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, নারায়ণগঞ্জ প্রিপারেটরি স্কুল ও বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড উচ্চ বিদ্যালয়।

সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন শ্রমিকনেতা বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী কাউসার আহমেদ পলাশ। বিশেষ অতিথি ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা গণগ্রন্থাগারের লাইব্রেরিয়ান মোশারফ হোসেন ও সমকালের নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি এমএ খান মিঠু ও জেলা সুহৃদ সমাবেশের সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হোসেন লিটন। অনুষ্ঠানে সুহৃদ সমাবেশ সরকারি তোলারাম কলেজ শাখার সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিযোগিতায় প্রধান বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন শিশুতোষ বিজ্ঞান লেখক ও সাংবাদিক শরীফ উদ্দিন সবুজ ও বিজ্ঞান আন্দোলন মঞ্চের সদস্য সুলতানা আক্তার।

নরসিংদী :জেলার এলজিইডি অডিটোরিয়ামে আটটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের নিয়ে বিতর্ক উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। এতে দুয়ারীয়া মডেল উচ্চ বিদ্যালয় চ্যাম্পিয়ন ও ব্রা?হ্মন্দী মাধ্যমিক বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় রানার্সআপ হয়েছে। শ্রেষ্ঠ বিতার্কিক হয়েছে রানার্সআপ দলের তাসমিয়া আক্তার।

উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সমকালের নরসিংদী জেলা প্রতিনিধি নুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন আব্দুল কাদির মোল্লা সিটি কলেজের অধ্যক্ষ ড. মশিউর রহমান মৃধা, এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী রায়হান সিদ্দিক, সাবেক জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা শাহজাহান মিয়া।

বিতর্ক প্রতিযোগিতায় মডারেটর ছিলেন নরসিংদী ন্যাশনাল কলেজের শিক্ষক আরিফ পাঠান। বিচারক ছিলেন প্রভাষক আরমান হোসেন, আব্দুল কাদির মোল্লা, নিতাই চন্দ্র নন্দী, শামীম সরকার। সমাপনী পর্বে বিজয়ী ও অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে পুরস্কার ও শুভেচ্ছা স্মারক তুলে দেন অতিথিরা।

অনুষ্ঠান পরিচালনায় ছিলেন নরসিংদী সুহৃদ সমাবেশের সাধারণ সম্পাদক তৌকির আহমেদ, সদস্য জিদনী আহমেদ, সোহানা ইতি, শাহ মো. সবুজ ও মামুন।

রাজবাড়ী :রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মিলনায়তনে আটটি বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে রাজবাড়ী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় চ্যাম্পিয়ন ও কাজী হেদায়েত হোসেন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় রানার্সআপ হয়েছে। শ্রেষ্ঠ বিতার্কিক হয়েছে বিজয়ী দলের দলনেতা হুরে জান্নাত তিশা।

বিকেলে সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন রাজবাড়ী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফকীর আব্দুল জব্বার। রাজবাড়ী সুহৃদ সমাবেশের সভাপতি মুহাম্মদ সাইফুল্লাহর সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন রাজবাড়ী সরকারি কলেজের অধ্যাপক দীপক কুমার কর্মকার, শিক্ষক আহসান হাবীব, বিজ্ঞান চেতনার আহ্বায়ক মহিতুজ্জামান বেলাল, রাজবাড়ী সুহৃদ সমাবেশের উপদেষ্টা আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ রঞ্জন, রাজবাড়ী সুহৃদ সমাবেশের সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক জুয়েল। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন জেলা সুহৃদ সমাবেশের সাধারণ সম্পাদক নাসির খান।

এর আগে সকালে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন একুশে পদকপ্রাপ্ত চিত্রশিল্পী চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের অধ্যাপক মনসুর উল করিম। বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজবাড়ী সরকারি কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান বদর উদ্দিন আহমেদ, সাবেক জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সৈয়দ সিদ্দিকুর রহমান, শিক্ষক মাহবুবা আক্তার ও প্রদ্যুৎ কুমার দাস।

দিনব্যাপী বিতর্ক প্রতিযোগিতায় বিচারক ছিলেন আহসান হাবীব, মহিতুজ্জামান বেলাল, মুহম্মদ সাইফুল্লাহ, পুলক রঞ্জন পালিত, আশিফ মাহমুদ, খোকন মাহমুদ, নেহাল আহমেদ, সালেহীন পাপন, নাসির খান, জুয়েল, খাদিজা, রোজা, সামস, রাফি, লিসা, নিলয় প্রমুখ। পুরো অনুষ্ঠান সমন্বয় করেন সমকালের রাজবাড়ী প্রতিনিধি সৌমিত্র শীল চন্দন।

মুন্সীগঞ্জ :মুন্সীগঞ্জ শহরের কাজী প্লাজায় ফ্রেন্ড কিচেন অ্যান্ড পার্টি প্যালেসের হলরুমে অনুষ্ঠিত বিতর্ক প্রতিযোগিতায় বছিরননেছা উচ্চ বিদ্যালয় চ্যাম্পিয়ন ও এ ভি জে এম সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় রানার্সআপ হয়েছে। শ্রেষ্ঠ বিতার্কিক হয়েছে চ্যাম্পিয়ন দলের দলনেতা মারিয়া আক্তার।

এবারের বিতর্ক উৎসবে অংশ নেওয়া জেলার বিদ্যালয়গুলো হলো- প্রফেসর ড. ইয়াজউদ্দিন আহম্মেদ রেসিডেন্সিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ইদ্রাকপুর উচ্চ বিদ্যালয়, বজ্রযোগিনী জে কে উচ্চ বিদ্যালয়, রিকাবীবাজার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, মাকহাটী জি সি উচ্চ বিদ্যালয়, মুন্সীগঞ্জ উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় ও রনছ-রুহিতপুর উচ্চ বিদ্যালয়।

সকালে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে বিতর্ক উৎসবের উদ্বোধন করেন দৈনিক সভ্যতার আলো সম্পাদক মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল। উপস্থিত ছিলেন এটিএন নিউজের সিনিয়র নিউজরুম এডিটর সাহাদাৎ রানা, মুন্সীগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সিনিয়র সহসভাপতি অ্যাডভোকেট সুজন হায়দার জনি, শিক্ষক নিবিড় রঞ্জন গুহ, সাজ্জাদুর রহমান রাসেল, সুহৃদ সমাবেশ জেলা শাখার সভাপতি নাট্যকার জাহাঙ্গীর আলম ঢালী, সাধারণ সম্পাদক নাদিম মাহমুদ প্রমুখ।

বিতর্ক প্রতিযোগিতায় বিচারক ছিলেন সাহাদাৎ রানা, সুজন হায়দার জনি, চ্যানেল নাইনের জেলা প্রতিনিধি শিহাবুল হাসান। অনুষ্ঠানে সহযোগিতা করেন সমকালের শ্রীনগর প্রতিনিধি সফিকুল ইসলাম, সুহৃদ সমাবেশের কাজী জান্নাতুল নাঈম প্রমুখ।

সমাপনী অনুষ্ঠানে বিজয়ী দল ও অন্যদের মধ্যে ক্রেস্ট এবং সনদ বিতরণ করেন মুন্সীগঞ্জ সরকারি হরগঙ্গা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ অধ্যাপক প্রবীর কুমার গাঙ্গুলী। বক্তব্য দেন সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ইউনিটের সাবেক কমান্ডার এম এ কাদের, মুন্সীগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল। স্বাগত বক্তব্য দেন সমকালের প্রতিনিধি ও প্রতিযোগিতার সমন্বয়ক কাজী সাব্বির আহমেদ দীপু।

শরীয়তপুর :শরীয়তপুরের পালং উচ্চ বিদ্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে আটটি বিদ্যালয়ের বিতার্কিকদের নিয়ে বিতর্ক উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে আংগারিয়া উচ্চ বিদ্যালয় চ্যাম্পিয়ন ও বিঝারী উপসী তারাপ্রসন্ন উচ্চ বিদ্যালয় রানার্সআপ হয়েছে।

অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন শরীয়তপুর সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান হাওলাদার। এ সময় উপস্থিত ছিলেন শিক্ষক এমরান সরদার, আব্দুল হালিম শেখ। সুহৃদ সমাবেশের জেলা শাখার আহ্বায়ক সহকারী অধ্যাপক আব্দুস সোবাহান বাবুল অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ও বিতর্ক প্রতিযোগিতার মডারেটর ছিলেন। বিতর্কে বিচারক ছিলেন শিক্ষক শাহিন সরকার ও মোজাম্মেল হোসেন। সঞ্চালনা করেন খাদিজা আক্তার লিপি। স্বাগত বক্তব্য দেন সমকালের শরীয়তপুর প্রতিনিধি শহীদুল ইসলাম পাইলট।

প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া বিদ্যালয়গুলো হলো পালং উচ্চ বিদ্যালয়, আংগারিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, বিঝারী উপসী তারাপ্রসন্ন উচ্চ বিদ্যালয়, বি এম ইউসুফ আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়, চিকন্দী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, শোলপাড়া মনোয়ার খান উচ্চ বিদ্যালয়, আবুতালেব মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও ডোমসার জগৎ চন্দ্র ইনস্টিটিউট অ্যান্ড কলেজ।

গোপালগঞ্জ :গোপালগঞ্জ শেখ হাসিনা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে আটটি বিদ্যালয়ের বিতার্কিকদের নিয়ে বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। তর্ক-বিতর্কের জমজমাট লড়াই উপভোগ করে সহস্রাধিক শিক্ষার্থী। এতে গোপালগঞ্জ সরকারি এস এম মডেল উচ্চ বিদ্যালয় চ্যাম্পিয়ন ও গোপালগঞ্জ বীণাপাণি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় রানার্সআপ হয়েছে। শ্রেষ্ঠ বিতার্কিক হয়েছে চ্যাম্পিয়ন দলের দলনেতা অর্পণ সাহা।

বিতর্ক প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন দেশের প্রতিথযশা শিল্প উদ্যোক্তা সোয়ান গ্রুপের চেয়ারম্যান খবীর উদ্দিন খান। সরকারি বঙ্গবন্ধু কলেজের অর্থনীতি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও গোপালগঞ্জ সমকাল সুহৃদ সমাবেশের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন সমকালের গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি মনোজ সাহা।

প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া অন্য বিদ্যালয়গুলো হলো- সরকারি কোটালীপাড়া ইউনিয়ন ইনস্টিটিউট, শেখ হাসিনা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ, গোপালগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, স্বর্ণকলি উচ্চ বিদ্যালয়, গেটওয়ে মডেল স্কুল।

বিতর্কে বিচারক ছিলেন সহযোগী অধ্যাপক আমিনুল করিম, সহকারী অধ্যাপক হামিমুর রহমান খান, প্রভাষক মোস্তাফিজুর রহমান, ফারুকুজ্জামান সৈকত, জুলফিকার আলী বিশ্বাস ও রূপম রোহান।

সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান চৌধুরী এমদাদুল হক। আরও ছিলেন শিক্ষাবিদ লতিফা জামাল চৌধুরী ও অধ্যক্ষ হুমায়ারা আক্তার। পুরো অনুষ্ঠানে সমন্বয়ক ছিলেন সমকালের গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি মনোজ সাহা।