সিলেটে কলেজের বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগের হামলা

প্রকাশ: ১৯ এপ্রিল ২০১৯

সিলেট ব্যুরো

সিলেটের ঐতিহ্যবাহী মদন মোহন কলেজের তারাপুর ক্যাম্পাসের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে আয়োজিত বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে হামলা ও ভাংচুর চালিয়ে পণ্ড করেছে ছাত্রলীগ। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে কলেজ ক্যাম্পাস সংলগ্ন আলী বাহার চা বাগানের বাংলোতে বর্ষবরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। আমন্ত্রণ না পাওয়ায় ছাত্রলীগের একাংশ অনুষ্ঠানে হামলা চালায় বলে আয়োজকরা দাবি করেছেন। তবে মদন মোহন কলেজ ছাত্রলীগ এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, নগরীর লামাবাজারে মদন মোহন কলেজের প্রধান ক্যাম্পাসের পাশাপাশি তারাপুরে আরেকটি ক্যাম্পাস রয়েছে। তারাপুর ক্যাম্পাসের অ্যাকাউন্টিং ও ম্যানেজমেন্ট বিভাগের শিক্ষার্থীরা ওই বাংলোতে বর্ষবরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। বেলা দেড়টার দিকে ছাত্রলীগের ৩০-৩৫ জনের একটি দল অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত হয়ে হামলা ও ভাংচুর চালায়। এ সময় তারা বাংলোর কাচের দরজা-জানালা, অনুষ্ঠানের মঞ্চ, চেয়ার ও সাউন্ড সিস্টেম ভাংচুর করে। তাদের আটকাতে গেলে মদন মোহন কলেজের প্রভাষক পংকজ কান্তি দত্ত ও তামান্না ইসলামকে গালাগাল করে হামলাকারীরা।

এ হামলায় অনুষ্ঠানের জন্য ভাড়া করে আনা সাউন্ড সিস্টেম প্রতিষ্ঠানের কর্মী শিহাবসহ ৪-৫ জন আহত হয়। মদন মোহন কলেজের প্রধান ক্যাম্পাসের ছাত্রলীগের একটি পক্ষকে আমন্ত্রণ না দেওয়ায় এ হামলা হয়েছে বলে একাধিক সূত্র জানিয়েছে। তবে এ হামলার সঙ্গে ছাত্রলীগের কারও সংশ্নিষ্টতার অভিযোগ অস্বীকার করে মদন মোহন কলেজ ছাত্রলীগের

সভাপতি মাহমুদুল হাসান সানি বলেন, কলেজের মূল ক্যাম্পাসে আজ (গতকাল) পরীক্ষা চলছে। ছাত্রলীগের সবাই এখানে রয়েছে। কেউ (তারাপুর ক্যাম্পাসের শিক্ষার্থীদের) ওই অনুষ্ঠানের দিকে যায়নি। তিনি দাবি করেন, ছাত্রলীগের নামে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে।

তারাপুর ক্যাম্পাসের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের আমন্ত্রণ দিয়েই এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল বলে সংশ্নিষ্টরা জানিয়েছে। এই আয়োজনে ছাত্রলীগের অনেক নেতাকর্মী সম্পৃক্ত ছিল।

বিমানবন্দর থানার ওসি এসএম শাহাদাত হোসেন বলেন, অনুষ্ঠান আয়োজনের সঙ্গে ছাত্রলীগের একটি পক্ষ জড়িত ছিল। ছাত্রলীগের আরেক পক্ষকে আমন্ত্রণ না দেওয়ায় তারা হামলা চালিয়েছে। হামলার পর আয়োজকরা অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেন।

মদন মোহন কলেজের তারাপুর ক্যাম্পাসের ইনচার্জ অধ্যাপক জয়ন্ত দাস বলেন, ছাত্ররা অনুমতি নিয়ে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল। হামলা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, শুনেছি গাড়ি পার্কিং নিয়ে তাদের মধ্যে ঝামেলা হয়েছে।