চিকিৎসক না পেয়ে রাস্তায় সন্তান জন্ম দিলেন প্রসূতি

প্রকাশ: ১৯ এপ্রিল ২০১৯

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

প্রসব বেদনা ওঠার পর চিকিৎসকের সহায়তার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যান প্রসূতির স্বজনরা; কিন্তু হাসপাতালে গিয়ে দেখেন কোনো চিকিৎসক নেই। এমনকি কোনো নার্সও প্রসূতির সেবায় এগিয়ে আসছেন না। এ অবস্থায় প্রসূতি ও তার অনাগত সন্তানের জন্য দুশ্চিন্তা শুরু হয়ে যায় স্বজনদের। প্রয়োজনীয় চিকিৎসা ও সহযোগিতার জন্য প্রসূতিকে বেসরকারি ক্লিনিকে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তারা। এ জন্য হাসপাতাল থেকে ভ্যানে করে প্রসূতিকে বের করে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে কিছুদূর গিয়ে রাস্তায় মধ্যেই সন্তান জন্ম দেন ওই প্রসূতি। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে টাঙ্গাইলের ভুঞাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বর থেকে একশ' গজ দূরে সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

প্রসূতির পরিবার ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, গতকাল দুপুরে ওই প্রসূতির প্রসব বেদনা শুরু হয়। তখন জরুরিভাবে তাকে ভুঞাপুর হাসপাতালে নিয়ে আসেন স্বজনরা; কিন্তু সেখানে চিকিৎসক বা নার্সকে পাননি তারা। চিকিৎসার অভাবে প্রসূতির ক্ষতির আশঙ্কায় তারা হাসপাতাল ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেন। তখন বেসরকারি

ক্লিনিকে নেওয়ার জন্য হাসপাতাল থেকে ভ্যানে প্রসূতিকে বাইরে নিয়ে আসা হয়। কিছুক্ষণ পর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বাইরের সড়কে থানা মোড় এলাকায় তিনি একটি কন্যাশিশু জন্ম দেন।

প্রসূতির স্বজনদের অভিযোগ তারা হাসপাতালে যাওয়ার পর কোনো চিকিৎসককে দেখতে পাননি। তাদের সহযোগিতা করতে কেউ এগিয়ে আসেনি।

ভুঞাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসক ডা. তৌফিক এলাহী বলেন, 'আমি শুনেছি যে এরকম একজন প্রসূতি রোগী এসেছিল। ওই সময় কর্তব্যরত মেডিকেল অ্যাসিস্ট্যান্ট ওয়াশরুমে ছিলেন। তাই কাউকে না পেয়ে তারা হাসপাতাল ছেড়ে চলে গেছেন।'