প্রেমের ফাঁদে ফেলে অপহরণ ছয় দিন পর শিক্ষার্থী উদ্ধার চক্রের ৫ সদস্য গ্রেফতার

প্রকাশ: ১৯ এপ্রিল ২০১৯

সমকাল প্রতিবেদক

রাজধানীর কলাবাগান থেকে অপহৃত শিক্ষার্থী মেহেদি হাসান রায়হানকে (২৫) ছয় দিন পর উদ্ধার করেছে র‌্যাব। প্রেমের ফাঁদে ফেলে তাকে অপহরণ করা হয়েছিল। বুধবার রাতে সাভারের আমিনবাজার এলাকা থেকে তাকে উদ্ধার ও অপহরণকারী চক্রের পাঁচ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলো- কাজল বেগম, আজিজুল হাকিম, লিটন মোল্লা, নজরুল ইসলাম বাবু ও নুরু মিয়া ওরফে নুর ইসলাম। বৃহস্পতিবার কারওয়ানবাজারের র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে র‌্যাব-৪ আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়।

র‌্যাব জানায়, অপহরণকারী চক্রের এক নারীর সঙ্গে ফেসবুকে পরিচয় হয় ঢাকার একটি কলেজের মাস্টার্সের ছাত্র মেহেদির। ম্যাসেঞ্জারে নিয়মিত যোগাযোগের একপর্যায়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে তাদের। পূর্বপরিকল্পিতভাবেই মেহিদেকে প্রেমের ফাঁদে ফেলা হয়। গত ১২ এপ্রিল কলাবাগান থেকে তিনি তার পূর্বপরিচিত বাহারের প্রাইভেটকারে চড়ে কথিত প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে আমিনবাজারে যান। সেখানে পৌঁছানোর পরই একটি ভবনে মেহেদিকে আটক করে অপহরণকারীরা। হাত ও চোখ-মুখ বেঁধে তাকে মারধর করা হয়। তার পরিবারের কাছে মোবাইল ফোনে ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে তারা। মুক্তিপণের টাকা না দিলে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়। পরে পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ দিতে রাজি হয় মেহেদির পরিবার। চক্রের সদস্যদের কথামতো ১৫ এপ্রিল মিরপুর এলাকায় একটি পরিত্যক্ত সিগারেটের প্যাকেটের পাশে কাগজ দিয়ে এক লাখ টাকা রাখে মেহেদির পরিবার। সেই টাকা নেওয়ার পর আরও চার লাখ টাকা দ্রুত দিতে বলে তারা। এরই মধ্যে রায়হানের স্বজনরা র‌্যাব-৪-এর সঙ্গে যোগাযোগ করে। বুধবার রাতে র‌্যাব আমিনবাজারে অভিযান চালিয়ে মেহেদিকে উদ্ধার করে। এ সময় অপহরণকারী চক্রের পাঁচ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়।