সাঘাটায় ছাত্রলীগের হামলায় যুবলীগ কর্মী নিহত

প্রকাশ: ০৭ জুলাই ২০১৮      

গাইবান্ধা ও সাঘাটা প্রতিনিধি

সাঘাটায় ছাত্রলীগের হামলায় যুবলীগ কর্মী নিহত

মুকুল মিয়া

গাইবান্ধার সাঘাটায় ছাত্রলীগের হামলায় মুকুল মিয়া (২৫) নামে এক যুবলীগ কর্মী নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার বোনারপাড়া রেলস্টেশন চত্বরে এ ঘটনা ঘটে। পরে ক্ষুব্ধ যুবলীগ কর্মীরা বোনারপাড়ার ফুটানির বাজারে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতির বাড়ি ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। নিহত মুকুল মিয়া ওই ইউনিয়নের শিমুলতাইর গ্রামের মোজাম মিয়ার ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে উপজেলা ছাত্রলীগ ও যুবলীগ নেতাকর্মীদের বিরোধ চলে আসছিল। বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রথমে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এ সময় যুবলীগের দুই কর্মী আহত হন। পরে সন্ধ্যার দিকে যুবলীগ কর্মী মুকুল মিয়া বোনারপাড়া রেলস্টেশনের ওভারব্রিজের নিচে একটি দোকানে বসে চা পান করছিলেন। এ সময় উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আসাদুল ইসলাম দলবল নিয়ে তার ওপর হামলা চালায়। এতে মুকুলসহ আরও দুই যুবলীগ কর্মী আহত হন। গুরুতর আহত মুকুলকে উদ্ধার করে গাইবান্ধা সদর আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ যুবলীগ কর্মীরা আসাদুল ইসলামের বোনারপাড়ার ফুটানির বাজারের বাড়িতে হামলা ও অগ্নিসংযোগ করে। পরে গাইবান্ধা থেকে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে

আনে।

সাঘাটা থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান জানান, শিমুলতাইড় ও ফুটানির বাজার এলাকার মধ্যে ফুটবল খেলা নিয়ে ঘটনার সূত্রপাত। এর সঙ্গে যোগ হয়েছে দু'পক্ষের পূর্বের বিরোধ। এসবের জের ধরেই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। তিনি আরও জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে। অভিযুক্তদের আটকের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

ঘটনা সম্পর্কে জানতে সাঘাটা উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নাসিরুল আলম এবং উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আসাদুল ইসলামের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাদের পাওয়া যায়নি।