শিশুবিষয়ক প্রতিবেদনের জন্য ইউনিসেফের 'মীনা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড ২০১৭' পেয়েছেন ৪৯ জন গণমাধ্যমকর্মী। গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুসহ অন্য অতিথিরা বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। অতিথিদের মধ্যে ছিলেন ইউনিসেফ বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর এদুয়ার্দ বেগবেদার, ইউনিসেফ বাংলাদেশের শুভেচ্ছাদূত অভিনেত্রী আরিফা হাসান মৌসুমী ও জাদুশিল্পী জুয়েল আইচ।

অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী বলেন, শিশু ও বালিকাদের প্রধান শত্রু রাজাকার। তারা একাত্তরে শিশুদের হত্যা করেছে, নারীদের হত্যা করেছে। রাজাকারদের 'মানুষরূপী দানব' আখ্যায়িত করে তিনি বলেন, দেশের শত্রু রাজাকারদের সব সময় ঘৃণা করতে হয়। তাদের সমাজ থেকে দূরে রাখতে হয়। 'মীনা' কার্টুনের মীনার চেয়ে বেশি বয়সী কিশোরীর সমস্যাগুলো নিয়ে একটি কার্টুন তৈরি করা হবে বলেও জানান তথ্যমন্ত্রী।

'শেখানো হচ্ছে না ভিন্ন ধর্মের বন্ধুর সঙ্গে আচরণ' নিয়ে হ্যালোতে প্রকাশিত প্রতিবেদনের জন্য অনূর্ধ্ব ১৮ বছর বয়সীদের প্রিন্ট ও অনলাইন মিডিয়ার প্রতিবেদন বিভাগে প্রথম পুরস্কার পেয়েছেন ঢাকা পোস্ট বিডি ডটকমের মো. রাজন সিকদার। এ বিভাগে দ্বিতীয় পুরস্কার পেয়েছেন বিডিনিউজের শিশু সাংবাদিকতার ওয়েবসাইট 'হ্যালো'র সাদিক ইভান। আর তৃতীয় পুরস্কার উঠেছে বাংলাদেশ বাণীর রাবেয়া বর্ষী অনিতার হাতে। প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় পুরস্কার বিজয়ীদের যথাক্রমে ৫০ হাজার, ২৫ হাজার ও ১৫ হাজার টাকা এবং ক্রেস্ট ও সনদ দেওয়া হয়।

অনূর্ধ্ব ১৮ বছর বয়সীদের প্রিন্ট ও অনলাইন মিডিয়ার সৃজনশীল বিভাগে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় পুরস্কার পেয়েছেন যথাক্রমে মাসিক ফুলকড়ি পত্রিকার মীম নওশীন নাওয়াল খান, মাসিক মোহনা পত্রিকার মিশকাত রাসেল ও বাংলানিউজের আনিকা তাবাসসুম।

এবার মীনা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ডে রেডিওর সৃজনশীল বিভাগে (অনূর্ধ্ব ১৮) প্রথম ও তৃতীয় পুরস্কার পেয়েছেন রেডিও পল্লীকণ্ঠের গোলাম মোস্তফা তারেক ও হামীম রহমান খান। আর দ্বিতীয় পুরস্কার পেয়েছেন রেডিও ঝিনুকের আল মামুন রাজু।

রেডিওর সংবাদ প্রতিবেদন বিভাগে (অনূর্ধ্ব ১৮) রেডিও ঝিনুকের মো. সাজাদুল ইসলাম প্রথম এবং রেডিও সারাবেলার সেজুতি হাসান অদ্বিতী ও ইসমে আজম প্রসন্ন যথাক্রমে দ্বিতীয় ও তৃতীয় পুরস্কার পেয়েছেন। টেলিভিশনে সৃজনশীল বিভাগে (অনূর্ধ্ব ১৮) চিলড্রেন ফিল্ম

সোসাইটির সৈয়দা আবরার তোহা ধারা প্রথম, ইন্টারন্যাশনাল

চিলড্রেনস ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ২০১৭-এর মো. তৌফিকুল ইসলাম দ্বিতীয় এবং ফিল্ম ফেস্ট 'পরিবর্তন চাই'র রাজিয়া সুলতানা ও শরিফুল ইসলাম তৃতীয় পুরস্কার পেয়েছেন।

টেলিভিশন সংবাদ প্রতিবেদন বিভাগের (অনূর্ধ্ব ১৮) তিনটি পুরস্কারই পেয়েছেন এটিএন বাংলার সাংবাদিকরা। এ বিভাগে নজিবুর রহমান ছোটন ও মো. সেলিম মিঞা প্রথম, এহতেশামুল হক লিখন ও আবদু রহিম দ্বিতীয় এবং তানজিলা আক্তার মীম ও মো. শামীম দ্বিতীয় পুরস্কার পেয়েছেন। মোট ১৩টি বিভাগে ৪৯ জনকে পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য করুন