যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে ডিবিএল ফার্মার সাফল্য

প্রকাশ: ২৬ মার্চ ২০২০

শিল্প ও বাণিজ্য ডেস্ক

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে নিবন্ধিত ব্যবসায়িক গ্রুপ ডিবিএলের নতুন উদ্যোগ ডিবিএল ফার্মা ইনক উল্লেখযোগ্য সাফল্যের মধ্য দিয়ে তাদের প্রথম বছর পার করেছে। সম্প্রতি প্রকাশিত আইকিউভিএ (জরিপ অনুযায়ী ২০১৯ সালের শেষ প্রান্তিকে যুক্তরাষ্ট্রের মেথোকার্বামল জেনেরিক ট্যাবলেটের বাজারে ১৪.২০ শতাংশ মার্কেট শেয়ার নিয়ে ১৩টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ডিবিএল ফার্মা। আর প্রথম অবস্থানে আছে ভারতীয় গ্রানিউলস ফার্মার মার্কিন সহযোগী প্রতিষ্ঠান।

মেথোকার্বামল মাংশপেশির ব্যথায় যুক্তরাষ্ট্রে বহুল ব্যবহূত একটি ওষুধ। প্রথম বাজারজাতকারীর পেটেন্ট স্বত্ব মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ার পর থেকে মূলত ভারতীয় জেনেরিক ওষুধ কোম্পানিগুলো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এর বাজার দখলে নেয়। ২০১৮ সালের শেষদিকে ডিবিএলের পাশাপাশি বাংলাদেশের বেক্সিমকো ফার্মাও ওষুধটি যুক্তরাষ্ট্রে বাজারজাত করার জন্য ইউএস এফডিএর অনুমোদন পায়।

ডিবিএল গ্রুপ জানায় রপ্তানিমুখী পোশাক এবং সিরামিক শিল্পে সাফল্যের হাত ধরে ওষুধ শিল্পে বিনিয়োগ করছে তারা। প্রায় ৭০০ কোটি টাকার বিনিয়োগে গাজীপুরের কাশিমপুরে সম্পূর্ণ ইউএস এফডিএ স্ট্যান্ডার্ড অনুযায়ী নির্মাণাধীন ডিবিএল ফার্মার কারখানাটি এ বছরের শেষ নাগাদ বাংলাদেশের বাজারের জন্য ওষুধ উৎপাদন শুরু করবে। প্রায় ১০ একর জমির ওপর এ প্রকল্পটিতে ট্যাবলেট, ক্যাপসুল, সিরাপ, ইনজেকশন, ইনহেলারসহ প্রায় সব ধরনের ওষুধ উৎপাদনের লক্ষ্যে অত্যাধুনিক ইউরোপীয় সরঞ্জাম স্থাপনের কাজ চলছে। এ ছাড়া সম্প্রতি বন্ধ ঘোষিত গ্ল্যাক্সোস্মিথক্লাইন (জিএসকে) বাংলাদেশ লিমিটেডের চট্টগ্রামের ওষুধ কারখানায় ব্যবহূত ক্রিম ও অয়েন্টমেন্ট জাতীয় ওষুধের উৎপাদন ও মান নিয়ন্ত্রণের প্রযুক্তি সরঞ্জাম কিনে নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। ফলে বেটনোভেট, ব্যাকট্রোব্যান জাতীয় জনপ্রিয় ওষুধগুলোর বিকল্প হুবহু একই প্রযুক্তি ব্যবহার করে উৎপাদন ও মান নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে রোগীদের মধ্যে পৌঁছে দিবে ডিবিএল ফার্মা।