মারিয়া নূর। তারকা উপস্থাপক, মডেল ও অভিনেত্রী। উপস্থাপনার পাশাপাশি অভিনয় করছেন।

সাম্প্রতিক কাজ নিয়ে তার সঙ্গে কথা...

'হেরে যাওয়ার গল্প' ওয়েব ছবির পর অভিনয়ে আর দেখা যাচ্ছে না। কারণ কী?

নিয়মিত অভিনয়ের ইচ্ছা থাকলেও যে কোনো কাজ করতে চাই না। ভালো গল্প এবং যে চরিত্রের সঙ্গে নিজেকে মানিয়ে নিতে পারব, সেই কাজটি করতে চাই। তেমন গল্প, চরিত্র কিংবা বড়মাপের নির্মাতার সঙ্গে কাজের সুযোগ হলে আবার কোনো নাটক, টেলিছবি কিংবা ওয়েব ছবিতে দেখতে পাবেন। মাঝে অনেক দিন করোনার জন্য ঘর থেকে বের হইনি। তাই নতুন কাজ নিয়েও সেভাবে কিছু ভাবিনি।

'লেডিস অ্যান্ড জেন্টেলম্যান' সিরিজের আগ পর্যন্ত অভিনয় শখ বলেই উল্লেখ করেছেন। এই সিরিজের পর অভিনয় নিয়ে আপনার ভাবনা বদলে গেল কীভাবে?

'লেডিস অ্যান্ড জেন্টেলম্যান' সিরিজে আমার অভিনয় দর্শক পছন্দ করেছেন। তাদের প্রশংসা আমাকে আরও অভিনয়ে প্রেরণা জুগিয়েছে। এই সিরিজের আগে হাতেগোনা কয়েকটি নাটকে অভিনয় করেছি। বুঝতে পেরেছি, অভিনয় কতটা চ্যালেঞ্জিং কাজ। পর্দায় চরিত্রকে বাস্তব করে তুলে ধরা মোটেও সহজ নয়। কিন্তু এটাও সত্যি যে, নির্মাতারা সাহস এবং চরিত্রের সঙ্গে মিশে যাওয়ার সুযোগ তৈরি করে দিলে যে কোনো চরিত্রেই চ্যালেঞ্জ নেওয়া যায়।

অভিনয়ের জন্য স্কুলিং করছেন জানলাম!

অভিনয় শেখার জন্য থিয়েটারে গিয়ে কাজ করছি, বিষয়টা এমন নয়। নাটক, সিনেমা দেখে, অভিনয় বিষয়ে বিভিন্ন বই পড়ে, বিভিন্ন চরিত্র উপস্থাপন নিয়ে শিল্পীদের দৃষ্টিভঙ্গি জানার চেষ্টা করছি। শুরুতে অভিনয় ছিল শখ। এখন সেটা নেশায় পরিণত হয়েছে। এ জন্যই অভিনয়ে আগের চেয়ে বেশি মনোযোগী হয়েছি।

অভিনয়ের ব্যস্ততা বেড়ে গেলে উপস্থাপনায় আগের মতো সময় দেবেন?

উপস্থাপনার জন্যই আমি আজকের মারিয়া নূর। যতটুকু পরিচিতি আর দর্শকের ভালোবাসা পেয়েছি, তা উপস্থাপনার জন্যই। তাই অভিনয় নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়লেও উপস্থাপনা থেকে সরে যেতে চাই না।

কোনো কাজের শুরুতে আপনার ভাবনা কী থাকে?

উপস্থাপনা, অভিনয়, মডেলিং; যে কাজই করি না কেন, সেখানে ভিন্নতা থাকতে হবে। একই ধরনের কাজ বারবার দর্শকের সামনে তুলে ধরতে চাই না। এই ভাবনা নিয়েই মিডিয়ায় আমার পথচলা। তাই জনপ্রিয়তার মোহে কখনও স্রোতে গা ভাসাতে চাই না।

সামনে বেশ কয়েকটি ক্রিকেট সিরিজ আছে। সেসব আয়োজনে আপনাকে পাওয়া যাবে?

করোনার কারণে এখন ঘরবন্দি সময় পার করছি। এ জন্য ক্রিকেটের কোনো আয়োজন নিয়ে আপাতত ভাবছি না। তবে খেলাধুলার অনুষ্ঠানের প্রতি ভালোলাগা সবসময় ছিল, আছে এবং থাকবে।

মন্তব্য করুন