ইউটিউবে একটি ভিডিও পোস্ট করার পর মালয়েশিয়ার ১৮ বছর বয়সী তরুণী ভোভোনা মোসিবিনের জীবনে সুখবর আসা শুরু হয়। তার ক্লাসের অনলাইন পরীক্ষার জন্য ভালো ইন্টারনেট স্পিডের জন্য তিনি গাছেই রাত কাটিয়েছেন। এরকম একটি ভিডিও ইউটিউবে পোস্ট করার পর তা ভাইরাল হয়ে যায় এবং এরপর থেকে সুখবর পেতে শুরু করেন তিনি। 

ভোভোনা মোসিবিনের ভিডিওটি অনলাইনের জনপ্রিয় পোস্ট হয়ে যায় এবং তিনি প্রায় এক লাখ সাবস্ক্রাইবার পেয়ে যান তার ইউটিউবে চ্যানেলে। গত ১৩ জুন তিনি প্রথম ভিডিওটি পোস্ট করেছিলেন। খবর দ্য স্ট্রেইট টাইমসের

ক্লাসের অনলাইন পরীক্ষায় ভালো ইন্টারনেট স্পিড পেতে এক রাত গাছে কাটিয়ে ভোভোনা মোসিবিন যখন বাসায় ফেরেন তখন তার মা ভেবেছিলেন তিনি অসুস্থ এবং তার জন্য উদ্বিগ্ন ছিলেন। 

তার এই ভিডিও মালয়েশিয়ার কমপুং সাবানালং-এ নতুন নতুন সুযোগ সৃষ্টি করেছে এবং সেই অঞ্চলের বাস্তব চিত্রও তুলে ধরেছে। তবে ভোভোনা মোসিবিন জানিয়েছেন তিনি নিছক মজা করার জন্য ভিডিওটা বানিয়েছিলেন। 

ভোভোনা মোসিবিন বলেন, ভিডিওটি আপ করার পর অনেকে আমাকে সহায়তা করার জন্য ফোন করেন। মালয়েশিয়ার টেলিকম অফিস থেকেও ফোন করা হয়। মালয়েশিয়ার সাবাহ বিশ্ববিদ্যালয়ে একটা কোর্স করার সুযোগ পেয়েছেন। 

পাঁচ ভাইবোনদের মধ্যে কনিষ্ঠতম ভেভোনা প্রভাষক ও সফল ইউটিউবার হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন। হাল ছেড়ে না দিতে বাকিদের উৎসাহিত করতে সফল হবেন বলে আশাবাদী তিনি। 

তার নতুন পাওয়া খ্যাতির বিষয়ে তিনি বলেন, তার পরিবার তাকে ভালোটা গ্রহণ করতে বলেছে এবং নেতিবাচক বিষয়গুলো এড়িয়ে চলতে বলেছে।

মন্তব্য করুন