ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর শেষে দেশে ফিরেই জিম্বাবুয়ের উদ্দেশে উড়াল দেবে টাইগাররা। সফরে ৩টি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। তবে সাকিব আল হাসান ছুটি নেওয়ায় এই সফরে যাবেন না তিনি।

বৃহস্পতিবার মিরপুরে গণমাধ্যমকে বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান জালাল ইউনুস বলেছেন, 'অনেকে বলছিল দ্বিতীয় সারির দল। দ্বিতীয় সারির দল যাচ্ছে না, আমরা শক্ত বাংলাদেশ দল পাঠাতে চাই।'

সাকিব যাচ্ছে না জানিয়ে যোগ করেন জালাল, 'সিনিয়র খেলোয়াড়ের বেশিরভাগই এভেইলেবল। তারা সবাই খেলতে চায়। সিনিয়র মানে যারা খেলে সবাই-ই তো সিনিয়র, কয়েকজন ছাড়া এখন তো সিনিয়ররাই খেলছে। তারা জানিয়েছে তারা এভেইলেবল। সাকিব যাচ্ছে না, এটা আগেই আমাদের জানিয়েছে।'

উইন্ডিজ সফর শেষে দেশে ফেরার পর জিম্বাবুয়ে সফরের আগে দল বেশি সময় পাবে না। নির্বাচকরা তাই ইতোমধ্যে জিম্বাবুয়ে সফরের দল গঠন নিয়ে কাজ শুরু করে দিয়েছেন। জালাল ইউনুস বলেন, 'আজ নির্বাচকদের সাথে আমরা বসেছিলাম। তারা একটা দল চূড়ান্ত করছেন। যে দল এখন আছে, তাদের সবাই থাকছে। জিম্বাবুয়েতে পূর্ণ শক্তির দল যাবে। হয়ত পয়েন্টের খেলা না, চ্যাম্পিয়নশিপ বা সুপার লিগ না। কিন্তু সিরিজটি গুরুত্বপূর্ণ। এজন্য আমরা গুরুত্বের সাথে নিচ্ছি।'

জিম্বাবুয়ে পৌঁছেও ঠাঁসা সূচি বাংলাদেশ দলের। ওয়ানডে সিরিজ দিয়ে শুরু হবে দুই দলের লড়াই। তার আগে ২৫ জুলাই একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে মাঠে নামবে টাইগাররা। ২৮ জুলাই প্রথম ম্যাচ হবে, এরপর আগামী ৩০ জুলাই ও ১ আগস্ট হবে সিরিজের শেষ দুই ওয়ানডে।

ওয়ানডে সিরিজ শেষে শুরু হবে টি-টোয়েন্টির লড়াই। আগামী ৪, ৬ ও ৮ আগস্ট মাঠে গড়াবে টি-টোয়েন্টি সিরিজের তিন ম্যাচ। সব ম্যাচই অনুষ্ঠিত হবে হারারেতে।