‘শচীনের ব্যাটে সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়েছিলেন আফ্রিদি’

প্রকাশ: ০৩ আগস্ট ২০২০     আপডেট: ০৩ আগস্ট ২০২০   

অনলাইন ডেস্ক

ছবি: পিটিআই

ছবি: পিটিআই

ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচে ৩৭ বলে সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়েছিলেন শহীদ আফ্রিদি। অথচ তার দলে জায়গা হয়েছিল বোলার হিসেবে। লেগ স্পিনার মুশতাক আহমেদের বদলি হিসেবে। শ্রীলংকার বিপক্ষে ওই সেঞ্চুরিটা শচীন টেন্ডুলকারের দেওয়া ব্যাটে করেছিলেন আফ্রিদি।

ক্রিকেটের বিখ্যাত ম্যাগাজিন উইজডেনের পডকাস্টে সেই স্মৃতিচারণ করেছেন শহীদ আফ্রিদির সঙ্গে পাকিস্তান দলে অভিষেক হওয়া পেসার আজহার মাহমুদ। তিনি বলেন, ‘মুশতাক আহমেদের ইনজুরিতে দলে ডাক পান আফ্রিদি। সেই সময় শ্রীলংকার ওপেনার সনাথ জয়সুরিয়া এবং উইকেটরক্ষক কালুভিতারানা সামনে থেকে সমানে আক্রমণ করে খেলতো।

দলে আমরাও তাই তিনে এমন কাউকে চেয়েছিলাম- যে আক্রমণ করে খেলতে পারে। ওয়াসিম আকরাম আমাকে (আজহার মাহমুদ) এবং শহীদ আফ্রিদিকে ওই জায়গার জন্য ঠিক করেছিলেন। নেটে স্লগ সুইপ অনুশীলন করতে বলেছিলেন। আমি মোটামুটি ভালোই স্লগ শট খেলে ফিরলাম, এরপর নেটে গিয়ে স্পিনারদের বিপক্ষে আফ্রিদি খুনে মেজাজ ধারণ করেন।

পরের দিন শ্রীলংকার বিপক্ষে ম্যাচে সিদ্ধান্ত হয় আফ্রিদি তিনে ব্যাটিং করবেন। আমার যতটুকু মনে পড়ে, ওয়াকার ইউনূস একটা ব্যাট পেয়েছিলেন শচীন টেন্ডুলকারের থেকে। আফ্রিদি ওই ব্যাট দিয়েই খেলেছিলেন এবং সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছিলেন। প্রকৃতপক্ষে তিনি বোলার ছিলেন; যে জোরে বলে শট নিতে পারেন। শেষ পর্যন্ত আফ্রিদি অসাধারণ এক আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার শেষ করেছেন।’

শহীদ আফ্রিদির ১৯৯৬ সালে নাইরোবিতে করা দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ডটা দীর্ঘদিন টিকে ছিল। পরে ২০১৪ সালে কোরি অ্যান্ডারসন ৩৬ বলে সেঞ্চুরি করে সেই রেকর্ড ভাঙেন। পরের বছর ২০১৫ বিশ্বকাপে ৩১ বলে দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি করে দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ডটা নিজের করে নেন দক্ষিণ আফ্রিকার এবিডি ভিলিয়ার্স।