সৌম্য-শান্তর ব্যাটে উড়ে গেল ভারত ইমার্জিং দল

প্রকাশ: ১৬ নভেম্বর ২০১৯     আপডেট: ১৬ নভেম্বর ২০১৯      

ক্রীড়া প্রতিবেদক

ভারতের মাটিতে প্রথম টি-২০ জয়ের স্বাদ দিয়ে দেশে ফিরেছেন সৌম্য সরকার-নাঈম শেখ কিংবা আফিফ হোসেনরা। কিন্তু টি-২০ সিরিজ হারের সঙ্গে ভারতে প্রথম টেস্টে বড় হারে সেই স্মৃতি বিবর্ণ হয়ে ওঠার কথা। তবে ওই হার নিয়ে তো ক্রিকেটারদের পড়ে থাকা সুযোগ নেই। সৌম্য-শান্তরা তাই মন দিয়েছেন ইমার্জিং এশিয়া কাপে। তাতে 'বি' গ্রুপে প্রথম ম্যাচে হংকংকে হারানোর পর দ্বিতীয় ম্যাচে ভারতকে উড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ ইমার্জিং দল। ৪৭ বল হাতে রেখে তুলে নিয়েছে ৬ উইকেটের বড় জয়।

শনিবার সাভারে বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে টস জিতে প্রথমে বোলিং নেন বাংলাদেশ ইমার্জিং দলের অধিনায়ক নাজমুল ইসলাম শান্ত। একশ' রানের আগে ৪ উইকেট তুলে নিয়ে কোণঠাসা করে দেয় ভারতের ইমার্জিং দলকে। সেখান থেকে চারে নামা ভারতীয় ব্যাটসম্যান আরমান জাফরের ১০৫ রানের ইনিংসে ভর করে ২৪৬ রান তোলে ভারত। ঠিক ওভারের শেষ বলে অলআউট হয়।

পরে জবাব দিতে নেমে শুরুতে ফিরে যান আগের ম্যাচে ফিফটি পাওয়া এবং জাতীয় দলের হয়ে ভারতে দারুণ এক টি-২০ সিরিজ কাটানো নাঈম শেখ। পরে সৌম্য সরকার এবং নাজমুল শান্ত মিলে দলকে জয়ের সুবাস এনে দেন। তারা দু'জন দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে যোগ করেন ১৪৪ রান। সৌম্য সরকার ৬৮ বলে তিন ছক্কা ও সাত চারে ৭৩ রান করে ফিরে যান। পরে ইমার্জিং দলের অধিনায়ক নাজমুল শান্ত ৮৮ বলে  ১৪ চার ও দুই ছক্কায় ৯৪ রানের ইনিংস খেলে ফেরেন। এরপর ইয়াসির আলী দল জয় হতে ৫ রান দূরে থাকতে ২১ রান করে আউট হন। আফিফ হোসেন ক্রিজে থেকে ৩৪ রান করে দলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন।

ভারতের হয়ে আরমান জাফর ছাড়াও ওপেনার আরিয়ান জোয়াল ৩৭ রান করেন। তিনে নামা সানভির সিং খেলেন ২৬ রানের ইনিংস। এছাড়া বিনায়েক গুপ্তা খেলেন ৪০ রানের ইনিংস। বাংলাদেশ ইমার্জিং দলের ১৯ বছরের প্রান্তে থাকা ডানহাতি পেসার সুমন খান নেন ৪ উইকেট। হংকংয়ের বিপক্ষেও দারুণ বোলিং করেন তিনি। এছাড়া জাতীয় লিগেও ছিলেন উইকেট নেওয়ার ছন্দে। বাংলাদেশ ইমার্জিং দলের হয়ে সৌম্য সরকার এবং তানভির ইসলাম দুটি করে উইকেট নেন।