লর্ডসে গাপটিলের দু'রকম স্মৃতি

প্রকাশ: ২৩ জুলাই ২০১৯      

অনলাইন ডেস্ক

ছবি: ফাইল

লর্ডসে ক্রিকেট বিশ্বকাপের 'সেরা' ফাইনাল হয়ে গেছে। প্রথমবার ক্রিকেট বিশ্বকাপের ফাইনালে টাই। সুপার ওভারে টাই। দুর্দান্ত ওই ম্যাচের একজন ক্রিকেটার মার্টিন গাপটিল। মাঠে থেকে সাক্ষী হয়েছেন ইতিহাসের। নিজেও ইতিহাস হয়ে গেছেন। কারণ তার ওভার থ্রো থেকে ছয় রান পেয়ে যায় ইংল্যান্ড। গাপটিল ওই স্মৃতি ভুলতে পারছেন না।

কিউই ক্রিকেটার বলেন, ফাইনালের দিনটি তার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে ভালো ও খারাপ দিন। কারণ হিসেবে গাপটিল জানান, '‌লর্ডসে একটা দুরন্ত ফাইনাল হয়েছে। আমার মনে হয় ক্রিকেট জীবনের সেরা ও খারাপ দিন ছিল আমার। আবেগ থাকবেই। তবে সতীর্থদের সঙ্গে ফাইনাল খেলার মজাই আলাদা। আমাদের সমর্থন করার জন্য ভক্তদের ধন্যবাদ। অসাধারণ অনুভূতি।'

২০১৫ বিশ্বকাপে গাপটিল ছিলেন সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে তিনি ছিলেন পুরো ফ্লপ। ব্যাটে রান পাননি পুরো টুর্নামেন্টে। ফাইনালেও ব্যর্থ হন তিনি। এরপর ওভার থ্রো থেকে রান দেওয়া। সেই দোষ চাপা দেওয়ার সুযোগ ছিল ব্যাটিংয়ে সুপার ওভারে পুষিয়ে দিয়ে। কিন্তু গাপটিল সেখানেও ব্যর্থ হন। লর্ডসের স্মৃতি তাই কাঁটার মতো বিঁধে আছে গাপটিলের মনে।

গাপটিল বলেন, '‌ম্যাচটা হেরেছি। সুপার ওভারে শেষ বলে আমাদের দু'‌রান দরকার ছিল। কিন্তু দ্বিতীয় রানটা আমি সম্পূর্ণ করতে পারিনি। জোফরা আর্চারের বলে দ্বিতীয় রান নিতে গিয়েছিলাম। কিন্তু ডিপ মিড উইকেট থেকে জেসন রয়ের থ্রো থেকে আমাকে রান আউট করে দেয় জস বাটলার। আউট হওয়ার পর বাকরুদ্ধ হয়ে যাই। কিছুই ভাল লাগছিল না।'‌