সাধেই কি আর পাকিস্তানকে 'আনপ্রেডিক্টেবল' বলে

প্রকাশ: ১২ জুন ২০১৯     আপডেট: ১২ জুন ২০১৯      

অনলাইন ডেস্ক

ছবি-গেটি

হেরে যাওয়া ম্যাচ অবলীলায় জিততে পারা, আবার নিশ্চিত জিতে যাওয়া ম্যাচ প্রতিপক্ষের হাতে তুলে দিতে পারার ব্যতিক্রমধর্মী পরিসংখ্যানের কারণেই পাকিস্তান ক্রিকেট দলকে 'আনপ্রেডিক্টেবল' দল বলা হয়। বিশ্বকাপে আজ আরো একবার এই উপাধীটার সম্মান রাখলো এশীয় পরাশক্তিরা।

প্রথমে ফিল্ডিং করে আমিরের বোলিং জাদুতে অস্ট্রেলিয়াকে ৩০৭ রানের মধ্যে বেধে রাখে পাকিস্তান। অথচ একটা সময় মনে হচ্ছিল, অস্ট্রেলিয়ার স্কোরটা চারশ ছুঁইছুই করবে। শেষ দিকে এসে দুর্দান্তভাবে অস্ট্রেলিয়ার রানের রেশটা টেনে ধরেন আমির। শেষ ৮২ রানে ৮ উইকেট হারায় অস্ট্রেলিয়া।

৩০৮ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারালেও ধীরে ধীরে ম্যাচে নিজেদের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করে পাকিস্তান। ইমাম-বাবর আজম-মোহাম্মদ হাফিজের ব্যাটে একটা সময় জয়ের পথেই এগুচ্ছিল দলটি। ১৩৬ রানে ইমামের আউট হওয়ার পরই বদলে যায় ম্যাচের অবস্থা। 

অনিয়মিত বোলার অ্যারন ফিঞ্চ এসে তুলে নেন দারুণ খেলতে থাকা হাফিজকে। এরপর কামিন্স ফেরান শোয়েব মালিককে। এক ওভার পর আসিফ আলীকে আউট করে ম্যাচে অজি নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করেন রিচার্ডসন। মনে হচ্ছিল, সহজভাবেই ম্যাচটা জিতে নেবে অস্ট্রেলিয়া। ঠিক তখনই পুরোদস্তুর ব্যাটসম্যান হিসেবে আবির্ভূত হন হাসান আলী ও ওয়াহাব রিয়াজ। ১৫ বলে তিন চার ও তিন ছয়ে ৩২ রান করেন হাসান। এরপর দুটি চার ও তিনটি ছয়ে ৩৯ বলে ৪৫ রান করেন ওয়াহাব রিয়াজ। 

এই সময়ে ৩৬ বলে পাকিস্তানের দরকার ৪৬ বলে ৪৬ রান। অধিনায়ক সরফরাজ তখনো উইকেটে। পাক ভক্তদের চোখেমুখে তখন আশার আলো। ৪৫তম ওভারের দ্বিতীয় বলে রিয়াজকে ফেরান স্টার্ক। আম্পায়ার প্রথমে আউট দেননি। উইকেটরক্ষক ক্যারির হাবভাব দেখে রিভিউ নেবেন, না নেবেন না এমন দ্বন্দ্বে অধিনায়ক ফিঞ্চ। ঠিক শেষ সেকেন্ডে রিভিউয়ের আবেদন করেন অজি দলপতি। দেখা যায় বলটা ওয়াহাব রিয়াজের ব্যাটে আলতোভাবে চুমু দিয়ে উইকেটরক্ষক ক্যারির হাতে জমা পড়ে। অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের আনন্দ দেখে মনে হচ্ছিল ম্যাচটা বুঝি তারা তখনই জিতে গেছে। 

সেই ওভারে আমিরকেও ফিরিয়ে দেন স্টার্ক। পরের ওভারে পাকিস্তানের শেষ ভরসা অধিনায়ক সরফরাজ রান আউট হয়ে গেলে ম্যাচটা ৪১ রানে জিতে নেয় অস্ট্রেলিয়া। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে হেরে যাওয়া ম্যাচটা পকেটে পুরে নেয় সরফরাজের দল আর আজ প্রায় পকেটে ঢুকে পরা ম্যচটাকেও জিততে পারল না পাকিস্তান। উদাহরণসহ এটাকেই তো 'আনপ্রেডিক্টেবল' বলে।