পাবনার আটঘরিয়ায় এক নারী হোমিও চিকিৎসকে কুপিয়ে হত্যা করেছেন তার সাবেক স্বামী।  

বুধবার রাত ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, পাবনার আটঘরিয়া উপজেলার মাজপাড়া ইউনিয়নের খিদিরপুর বাজারে সোনাকান্দর বটতলা নামক স্থানে ডা. সারিনা আক্তার (২৮) নামক এক নারী হোমিও চিকিৎসক রোগী দেখতেন। বুধবার রাত ৮টার দিকে তাকে ছুরি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে তার সাবেক স্বামী রতন আলী (৩৬)। এ ঘটনার পর থেকে রতন পালাতক রয়েছে।

স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান, পাবনা জেলার আটঘরিয়া উপজেলার মাজপাড়া ইউনিয়নের পড়াসিধাই গ্রামের মৃত আব্দুর রহমানের পালিত কন্যা হোমিও চিকিৎসক সারিনা আক্তার খিদিরপুর বাজারের সোনাকান্দর বটতলা নামক স্থানে তার নিজস্ব হোমিও ওষুধের দোকানে রোগী দেখছিলেন। রাত ৮টার দিকে তার সাবেক স্বামী ঈশ্বরদী উপজেলার মুলাডুলি ইউনিয়নের মুলাডুলি রেলগেট এলাকার হাফিজ উদ্দিন কম্পানির ছেলে মো. রতন (৩৮) ধারালো ছুরি দিয়ে সারিনাকে কুপিয়ে রক্তাক্ত করে মোটরসাইকেলযোগে দ্রুত পালিয়ে যায়।

পরে আশেপাশের লোকজন টের পেয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় সারিনা আক্তারকে উদ্ধার করে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে আছে।

আটঘরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রাজ্জাক জানান, ঘটনার পর পরই পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে কুপিয়ে হত্যার ঘটনার তদন্ত চালাচ্ছে। আসামি গ্রেপ্তারের অভিযান ও জোর প্রচেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবার ও এলাকার সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।