বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা প্রথম টেস্ট

নাঈমের দিনে ম্যাথিউসের আক্ষেপ

প্রকাশ: ১৭ মে ২২ । ০০:০০ | আপডেট: ১৭ মে ২২ । ০২:২২ | প্রিন্ট সংস্করণ

সেকান্দার আলী, চট্টগ্রাম থেকে

একেই বলে 'স্পিরিট অব ক্রিকেট'- সোমবার চট্টগ্রাম টেস্টে লঙ্কান ব্যাটার অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসকে ১৯৯ রানে আউট করার পর তাঁর দুর্দান্ত ইনিংসের জন্য অভিনন্দন জানান নাঈম হাসান - বিসিবি

টেস্ট ক্রিকেট শরতের আকাশের মতো ক্ষণে ক্ষণে রং বদলায়। কখনও মনে হবে ব্যাটার আউট হবে না; উইকেট পড়তে থাকলে মনে হবে অলআউট হতে দেরি নেই। গতকাল চট্টগ্রাম টেস্টের দ্বিতীয় দিনের টুকরো টুকরো ছবির কোলাজ ছিল এমনই। প্রথম সেশনের শেষদিকে নাঈমের দুই উইকেট প্রাপ্তি, দ্বিতীয় সেশনে সাকিবের জোড়া আঘাত, হ্যাটট্রিকের সুযোগ উঁকি দেওয়া, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসের ১৯৯ রানে আউট হওয়া- এসবই রোমাঞ্চ ছড়ানো দিনের গল্প। একদিন আগে যে টেস্ট ম্যাচ পানসে ছিল, গতকাল সেখানে উত্তেজনার কমতি ছিল না। নাঈমের ৬ উইকেট পাওয়ার আনন্দ আরও উপভোগ্য হয়ে ওঠে বাংলাদেশ বিনা উইকেটে ৭৬ রানে দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ করায়। এক কথায় শোভন সুন্দর ব্যাটিং দেখার বিমল আনন্দ নিয়ে ঘরে ফিরেছেন দর্শক। নতুন সকালে ব্যাটারদের নবজাগরণ দেখতে আজ আবার তাঁরা ফিরবেন গ্যালারিতে।

চট্টগ্রামের ব্যাটিং স্বর্গে শ্রীলঙ্কা চেয়েছিল ৫০০ রান করে ম্যাচে চালকের আসন নিতে। সফরকারীদের ৩৯৭ রানে বেঁধে ফেলে স্বাগতিক স্পিনার-ত্রয়ী তা হতে দেননি। সাকিব আল হাসান, তাইজুল ইসলাম রান চেক দেওয়ায় নাঈম হাসান জুটি ভাঙেন নিয়মিত বিরতিতে। ঘরের মাঠে তৃতীয়বারের মতো ৫ উইকেট শিকার তাঁর। লঙ্কানদের বিপক্ষে ৬ উইকেট প্রাপ্তি নাঈমের ক্যারিয়ারসেরা বোলিং। ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেও ইনিংসে ৫ উইকেট রয়েছে টাইগার অফ স্পিনারের। সাকিব ৩ উইকেট পেলেও ইকোনমিতে সেরা। ৩৯ ওভারে ৬০ রান খরচ তাঁর। সবচেয়ে বেশি বল করা তাইজুল হলেন অধিনায়ক মুমিনুল হকের জন্য আশীর্বাদ।

শ্রীলঙ্কা প্রথম দিন শেষ করে ৪ উইকেটে ২৫৮ রানে। আগের দিনের অপরাজিত জুটি অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস ও দিনেশ চান্দিমাল সকালটা ভালো মতোই পার করেন স্বাগতিকদের ভুলের সুযোগ নিয়ে। ১১৯ রানে জুটি ভাঙতে পারত লিটন ক্যাচ নেওয়ার পর আপিল করলে। দিনের চতুর্থ আর ৯৩.৫ ওভারে খালেদ আহমেদের বল ম্যাথিউসের ব্যাটে চুমু দিয়ে লিটনের গ্লাভসে জমা পড়ে। বিস্ময়কর হলেও ব্যাটে বল স্পর্শের শব্দ শুনতে পাননি ফিল্ডিং দলের কেউ। অবাক করার বিষয়, ধারাভাষ্য কক্ষ থেকেও কিছু বলা হয়নি। প্রডাকশন রুমের টেকনিশিয়ানরাও বুঝতে পারেননি ব্যাটার জীবন পেলেন। বিষয়টি ধরা পড়ে ৯৫ ওভার শেষে রিভিউ দেখা গেলে। আলট্রা সাউন্ডের তরঙ্গ ভেসে ওঠে কম্পিউটার স্ট্ক্রিনে। সেই ম্যাথিউসই শ্রীলঙ্কার ব্যাটিং নায়ক। ৯ ঘণ্টা ৩৮ মিনিট ক্রিজে থেকে ৩৯৭টি বল মোকাবিলা করে ১৯ বাউন্ডারি, এক ছক্কায় ১৯৯ রান নিয়ে শেষ ব্যাটার হিসেবে আউট হন। শ্রীলঙ্কার মোট রানের অর্ধেকেরও বেশি ম্যাথিউসের। লঙ্কান এ অলরাউন্ডার তিনটি জুটি গড়ে রানের পর রান দিয়ে সাজান ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেরা ইনিংসটি। মেন্ডিসকে নিয়ে ৯২, চান্দিমালের সঙ্গে ১৩৬ আর ফার্নান্দোর জুটিতে ৪৭ রান যোগ করেন স্কোর বোর্ডে। এই তিনটি জুটির মধ্যে সবচেয়ে আকর্ষণীয় ছিল ফার্নান্দোকে নিয়ে নবম উইকেট জুটিতে ১৪১ বলে ৪৭ রান করা। নান্দনিক ইনিংসটি খেলতে ভাগ্যের ছোঁয়াও ছিল। তিনবার আউটের হাত থেকে বেঁচে যান ৩৪ বছর বয়সী অলরাউন্ডার। তাইজুলের বলে ৩৮ রানে কট বিহাইন্ড দিলে রিভিউ নিয়ে বাঁচেন। ৬৯ রানে স্লিপে ক্যাচ ফেলেন মাহমুদুল হাসান জয় আর ১১৯ রানে কট বিহাইন্ড হলেও আউটের আবেদন হয়নি।

বাংলাদেশের বোলিং প্রথম দিনের চেয়ে গতকাল ছিল বেশ পরিকল্পিত। প্রতিটি সেশনেই জোড়ায় জোড়ায় উইকেট নিয়েছে। প্রথম সেশনের শেষদিকে নাঈম জোড়া আঘাত করেন। সেট ব্যাটার দিনেশ চান্দিমাল রিভার্স সুইপ খেলতে গিয়ে এলবিডব্লিউ হন। নতুন ব্যাটার নিরোশান ডিকওয়েলাকে বোল্ড আউট করেন ওভারের পঞ্চম বলে। মধ্যাহ্ন ভোজের পর প্রথম ওভারেই বাজিমাত করেন সাকিব। দ্বিতীয় বলে রমেশ মেন্ডিসের পর লাসিথ আম্বুলদানিয়াকে ফেরান। অল্পের জন্য হ্যাটট্রিক উইকেট পাওয়া হয়নি বাঁহাতি এ অলরাউন্ডারের। শেষ সেশনে ম্যাথিউস স্লো খেলায় জুটি ভাঙা কঠিন হয়ে পড়লে নাঈমে মেলে স্বস্তি। মাথার ওপর বিশাল রান তাড়া করার চাপ নিয়ে ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ। শুরুতেই বিপদ ঘটতে পারত স্লিপ ফিল্ডার কুশল মেন্ডিস তামিম ইকবালের ক্যাচ ফেলে না দিলে। গতকাল ৫২ বল মোকাবিলায় ওই একবারই ভুল করেন বাঁহাতি ওপেনার। সেট হয়ে যাওয়ার পর দুই ওপেনারই স্বচ্ছন্দ্যে ছিলেন। দিনের ছয় ওভার কম খেলা হওয়ায় ৭৬ রানে দিন শেষ করে টাইগাররা। অপরাজিত জুটি তামিম ৩৫, জয় ৩১ রানে আজ তৃতীয় দিন শুরু করবেন। এই অর্জনের মধ্যেও কিছু ত্রুটি বিচ্যুতি রয়ে গেছে। ক্যাচ ফেলা, ভুল রিভিউ এবং ফিল্ডিংয়ের ফাঁক গলে বাউন্ডারি হওয়ার বিষয়গুলো এড়িয়ে যাওয়ার নয়।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৭১৪০৮০৩৭৮ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com