রাজনৈতিক মতৈক্যে নতুন ইসি চায় বাম জোট

প্রকাশ: ১৯ জানুয়ারি ২২ । ২২:৪১ | আপডেট: ১৯ জানুয়ারি ২২ । ২২:৪১

অনলাইন ডেস্ক

নির্বাচন কমিশন আইন প্রণয়নের সরকারি উদ্যোগকে 'দুরভিসন্ধিমূলক অপকৌশল' আখ্যা দিয়ে অবিলম্বে ক্রিয়াশীল রাজনৈতিক দলগুলোর মতৈক্যের ভিত্তিতে নতুন নির্বাচন কমিশন গঠনের আহ্বান জানিয়েছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। একই সঙ্গে সরকারের পদত্যাগ ও নির্বাচনকালীন 'নিরপেক্ষ তদারকি সরকার' গঠনে উদ্যোগী হওয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে বামপন্থি জোটটি।

বুধবার বাম গণতান্ত্রিক জোটের এক বিবৃতিতে এই আহ্বান জানানো হয়। এতে বলা হয়, নির্বাচন কমিশন গঠন সংক্রান্ত নতুন আইনের উদ্যোগ রাজনৈতিক দল ও জনগণকে ধোঁকা দেওয়ার আরেক কৌশল। রাজনৈতিক দুর্বুদ্ধি আর দুরভিসন্ধিমূলক অপকৌশল থেকেই ক্রিয়াশীল রাজনৈতিক দল ও অংশীজনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে কোনো আলোচনা ও মতৈক্য ছাড়াই সরকারের পছন্দ অনুযায়ী 'সার্চ কমিটিকে' আইনি পোশাক পরিয়ে আগামী নির্বাচন কমিশন গঠনের জন্যই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সরকার ও সরকারি দলের এই অপকৌশল নির্বাচন কমিশন ও নির্বাচনকেন্দ্রিক বিদ্যমান সংকট সমাধানের বদলে আরও ঘনীভূত করবে।

বিবৃতিতে বলা হয়, সরকার একদিকে রাষ্ট্রপতিকে দিয়ে অর্থহীন সংলাপের আয়োজন করছে অন্যদিকে নীলনকশার অংশ হিসেবে সঙ্গোপনে মন্ত্রিপরিষদকে দিয়ে নির্বাচন কমিশন গঠনের খসড়া অনুমোদন করিয়ে সংসদে পাস করার পাঁয়তারা করছে।

নেতারা বলেন, সরকার যে রকিব কমিশন ও হুদা কমিশনের মতো আর একটি অনুগত ও মেরুদণ্ডহীন নির্বাচন কমিশন গঠন করতে চায়, সেটা অত্যন্ত স্পষ্ট। গত দুটি নির্বাচন কমিশন সরকারি দলের পক্ষে ন্যক্কারজনক ভূমিকা পালন করতে গিয়ে গোটা নির্বাচনব্যবস্থা ধ্বংস করেছে। দেশ থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচনব্যবস্থাকেই তুলে দিয়েছে। এ ধরনের আরেকটি নির্বাচন কমিশন যে সরকারি দলের রাবার স্ট্যাম্প হিসেবে ভূমিকা পালন করবে- তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। সমগ্র অভিজ্ঞতা প্রমাণ করছে, এই সরকারের পদত্যাগ ও নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ তদারকি সরকার গঠন এবং রাজনৈতিক দল ও জনগণের আস্থাভাজন যোগ্য নির্বাচন কমিশন ছাড়া দেশে এখন নূ্যনতম বিশ্বাসযোগ্য ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের কোনো অবকাশ নেই।

বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেছেন বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক ও বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, সিপিবির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম, বাসদের সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, বাসদের (মার্কসবাদী) সাংগঠনিক সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক মানস নন্দি, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নু, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশারেফা মিশু, ওয়ার্কার্স পার্টির (মার্কসবাদী) সাধারণ সম্পাদক ইকবাল কবির জাহিদ এবং সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের সভাপতি হামিদুল হক। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com