বলিউড নিয়ে ৭০-এর কৌশল মমতার

০৮ ডিসেম্বর ২১ । ০০:০০

রক্তিম দাশ

মোদিবিরোধী লড়াইয়ে মুম্বাইয়ের বলিউডকে শামিল করার প্রচেষ্টা শুরু করেছেন মমতা। তার নেতৃত্বাধীন তৃণমূল দেশজুড়ে হিন্দি সিনেমার প্রভাবকে কাজে লাগিয়ে ২০২৪ লোকসভা ভোটে বিজয় নিশ্চিত করতে বলিউড দখলের ব্লুপ্রিন্ট তৈরি করছে। অবস্থাদৃষ্টে এমনটাই মনে করছে ভারতের রাজনৈতিক মহল।

পঞ্চাশ ও ষাটের দশকে বলিউড কমিউনিস্ট পার্টি অব ইন্ডিয়ার (সিপিআই) সাংস্কৃতিক সংগঠন আইপিটিএর নিয়ন্ত্রণে ছিল। আইপিটিএতে তখন কৈফি আজমি, শৈলেন্দ্র, সলিল চৌধুরী, উৎপল দত্তের মতো গুণী শিল্পীরা ছিলেন। কংগ্রেসের শাসনের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে রাজপথে প্রতিবাদে মুখর হন তারা। স্বভাবতই এর প্রভাব পড়ে দেশজুড়ে। তবে সত্তরের দশক থেকে আইপিটিএর হাতছাড়া হতে শুরু করে বম্বে। বলিউড দখলের লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামে কংগ্রেস। কিছুদিন পর বম্বে থেকে কংগ্রেস সাংসদ হন নায়ক সুনীল দত্ত। মনমোহন সিংয়ের মন্ত্রিসভায় মন্ত্রীও হন তিনি। ১৯৮৪ সালে লোকসভা ভোটে কংগ্রেসের হয়ে নির্বাচন করেন অমিতাভ বচ্চন। কংগ্রেসের হয়ে নির্বাচনে লড়েন রাজেশ খান্না, অভিনেত্রী রেখা। অভিনেতা রাজ বব্বর উত্তরপ্রদেশ রাজ্যে কংগ্রেসের সভাপতি হন। মুম্বাই থেকে কংগ্রেসের সাংসদ হন গোবিন্দ।

২০১৯ সালে মোদি দ্বিতীয়বারের মতো ক্ষমতায় এলে বলিউডের একটা অংশ বিজেপির পক্ষে চলে যায়। তবে অপর অংশটি প্রবল মোদিবিরোধী হিসেবেই পরিচিত থাকে। এই অংশটিই এখন মমতার তুরুপের তাস হতে চলেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। গত বিধানসভা ভোটের পর দেশজুড়ে তৃণমূলকে ছড়িয়ে দেওয়ার লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছেন মমতা। বাংলার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর বানানো হয়েছে শাহরুখ খানকে। গোয়ায় তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন সাবেক বলিউড অভিনেত্রী ও কংগ্রেসনেত্রী নাফিসা আলি, বলিউডের গায়ক লাকি আলি। এ ছাড়া বলিউড অভিনেত্রী বর্ষা উসগাঁওকর তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন বলে জানা গেছে।

আগে থেকেই অমিতাভ বচ্চন ও তার পরিবারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা রয়েছে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর। কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনে মমতার ডাকে সপরিবারে উপস্থিত হয়েছিলেন বিগবি। গত বিধানসভা ভোটে তৃণমূলের সমর্থনে প্রচার করে গেছেন সমাজবাদী পার্টির রাজ্যসভার সাংসদ বাংলার মেয়ে জয়া বচ্চন। কলকাতায় এসে তৃণমূলনেত্রীর প্রশংসা করেছেন অভিনেত্রী শাবানা আজমি। 'খেলা হবে' নিয়ে শাবানার স্বামী জাভেদ আখতারকে একটি গান লেখারও অনুরোধ জানিয়েছিলেন মমতা।

সম্প্রতি মুম্বাই সফরে গিয়ে মমতা রাজনৈতিক কর্মসূচির পাশাপাশি বলিউডকে পাশে নিয়ে মোদিবিরোধী বার্তা দিয়েছেন। তার ডাকে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন জাভেদ আখতার, মহেশ ভাট, শোভা দে, রিচা চাড্ডা, স্বরা ভাস্করের মতো বলিউড তারকারা। এই বৈঠকে স্বরাসহ অন্যরা মমতাকেই মোদিবিরোধী মুখ হিসেবে তুলে ধরেছেন। এ সময় দেশজুড়ে বিজেপিবিরোধী আন্দোলনে শামিল হওয়ার জন্য বলিউডের প্রতি আহ্বান জানান তৃণমূল নেত্রী। বৈঠকের পরে মমতা জানান, কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে যোগ দেওয়ার জন্য শাহরুখ খান, অমিতাভ বচ্চন, সালমান খান ও আমির খানকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।

রাজনৈতিক বিশ্নেষকরা বলছেন, ১৯৭০ সালে কংগ্রেস যে কৌশল নিয়েছিল, বলিউডকে ব্যবহার করে সেই পথেই হাঁটছেন তৃণমূল নেত্রী। কারণ তিনি ভালোই জানেন, দেশবাসীর মন জয় করতে রাজনৈতিক নেতাদের অনেক সময় লাগলেও সিনেমার তারকারা তা অনায়াসে করে ফেলতে পারেন।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com