চরফ্যাসনে ট্রলারডুবি

নিখোঁজ মা ও ছেলের দু'দিনেও সন্ধান নেই

১৯ অক্টোবর ২১ । ০০:০০

চরফ্যাসন (ভোলা) প্রতিনিধি

চরফ্যাসনের কুকরিমুকরি ইউনিয়নের চরপাতিলা গ্রামে ছোট ছেলে মামুনের জন্য কনে দেখতে এসে বড় ছেলে স্বপনসহ মেঘনায় হারিয়ে গেছেন বৃদ্ধ মা বিলকিছ বেগম। গত রোববার দুপুরে চরপাতিলা সংলগ্ন মেঘনায় পরিবারের ৯ সদস্য নিয়ে ট্রলারডুবির কবলে পড়েন বিলকিছ বেগম। কিন্তু গতকাল সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত স্বপন ও তার মাকে উদ্ধার করা যায়নি। বৈরী আবহাওয়ার প্রভাবে নদী উত্তাল এবং খরস্রোতের কারণে উদ্ধার অভিযানে গিয়েও ব্যর্থ হয়ে ফিরে এসেছে কোস্টগার্ড, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

স্থানীয় সূত্র, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, বিধবা বিলকিছ বেগমের বাড়ি চরফ্যাসন উপজেলার দক্ষিণ আইচা থানার মুজিবনগর ইউনিয়নের সিকদারচর গ্রামে। তেঁতুলিয়া পাড়ের সিকদারচর থেকে ছোট ছেলে মামুনের জন্য মেয়ে দেখতে পরিবারের ৯ সদস্যকে সঙ্গে নিয়ে কুকরিমুকরি ইউনিয়নের মেঘনা পাড়ের গ্রাম চরপাতিলায় আসেন তিনি। কনে দেখে রোববার দুপুরে পরিবারের ৯ সদস্যকে নিয়ে ট্রলারে করে চরপাতিলা থেকে নিজ গ্রাম সিকদারচর ফিরছিলেন তারা। বৈরী আবহাওয়ায় আকস্মিক ঝড়ের কবলে পড়ে চরপাতিলা সংলগ্ন মেঘনায় ট্রলারটি ডুবে যায়। ট্রলারডুবির পর স্থানীয় জেলেরা নিখোঁজ স্বপনের স্ত্রী রোজিনা এবং তার কোলে থাকা দেড় বছরের শিশু সন্তান জোবায়েরসহ মেঘনায় ভাসতে থাকা ছয়জনকে জীবিত উদ্ধার করেন। স্বপনের বড় ছেলে তিন বছরের জুনায়েদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। কিন্তু ট্রলার মালিক স্বপন ও তার মা বিলকিছ বেগমকে উদ্ধার করা যায়নি।

ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার আসাদুজ্জামান জানান, বৈরী আবহাওয়ার প্রভাবে নদী উত্তাল এবং খরস্রোতের কারণে উদ্ধার অভিযানে গিয়েও ব্যর্থ হয়ে ডুবুরি দল ফিরে এসেছে। তবে উদ্ধার কাজ চলবে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com