ইউএনওর নম্বরে ফোন দিলেই পৌঁছে যায় খাদ্যসামগ্রী

০৬ এপ্রিল ২০ । ০০:০০

কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধি

করোনাভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়েছে গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার মানুষ। এ কারণে অর্থের অভাবে খাদ্য কিনতে পারছেন না অনেকে। কিন্তু আত্মসম্মানের ভয়ে অনেকে বলতে পারছেন না তাদের অভাবের কথা। ক্ষুধা তো মানে না কোনো বাধা; অন্নের অভাবে পরিবারের ৪ জন না খাওয়া। শনিবার রাত পৌনে ৮টার দিকে কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিবলী সাদিকের সরকারি নম্বরে একটি ফোন আসে। ফোনকারী নিজেকে কালীগঞ্জ পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের মধ্য ভাদার্ত্তী এলাকার গোলাম মোস্তফার ছেলে জাকিউল ইসলাম পরিচয় দিয়ে বলে, দু'দিন ধরে না খাওয়া তার পরিবারের চার সদস্য।

খবর পেয়ে রাত সাড়ে ৮টায় ১০ কেজি চাল, দুই কেজি আলু, এক কেজি ডাল অভাবগ্রস্ত জাকিউল ইসলামের বাড়িতে পৌঁছে দেন কালীগঞ্জের ইউএনও শিবলী সাদিক।

কালীগঞ্জ ইউএনও বলেন, সমাজে একশ্রেণির লোক আছেন, যারা কষ্ট ও অভাবে থাকলেও মানুষের কাছে হাত পাততে পারেন না। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সরকার কর্মহীন হতদরিদ্র মানুষকে খাদ্য সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে। উপজেলার কেউ যেন অভুক্ত না থাকেন, সে লক্ষ্যে প্রতিদিন অভাবীদের খোঁজে বের করে তাদের মধ্যেও খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com