তারার মেলায় জাতীয় লীগ শুরু

১০ অক্টোবর ২০১৯

ক্রীড়া প্রতিবেদক

২১তম জাতীয় লীগে আজ শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে ঢাকা মেট্টো-চট্টগ্রাম বিভাগ। ট্রফি হাতে দুই অধিনায়ক মার্শাল আইয়ুব ও মুমিনুল হক - বিসিবি

দেশের চার ভেন্যুতে খেলা হওয়ায় শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে গতকাল ট্রফি উন্মোচনে ছিলেন দ্বিতীয় টায়ারের দল চট্টগ্রাম বিভাগ ও ঢাকা মেট্রোর দুই অধিনায়ক মুমিনুল হক আর মার্শাল আইয়ুব। এই ট্রফি উন্মোচন করে বার্তা দেওয়া হলো, এবারের জাতীয় লীগটাকে বেশ গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। ক্রিকেটারদের বিপ টেস্টের মধ্য দিয়েই সে প্রক্রিয়া শুরু হয়। বেশিরভাগই সেট স্কোর করে লীগে খেলার সুযোগ পেয়েছেন। আর সিনিয়র ক্রিকেটারদের একটা অংশ খেলছেন গ্রেস নিয়ে। আবার কেউ কেউ খেলার সুযোগও পাচ্ছেন না। মোহাম্মদ শরিফ, মোহাম্মদ শহিদ শেষের দলের সদস্য। খেলার সুযোগ না পাওয়ার সংখ্যাটা খুবই কম। সুতরাং সংখ্যাগরিষ্ঠের আনন্দ-উৎসবের মধ্য দিয়েই আজ মাঠে গড়াচ্ছে জাতীয় লীগের ২১তম আসরে খেলা।

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ঢাকা মেট্রোর বিপক্ষে খেলবে চট্টগ্রাম বিভাগীয় দল। দ্বিতীয় টায়ারের এই ম্যাচ ঘিরে কিছুটা আকর্ষণ থাকবে তারকা ক্রিকেটাদের কারণেই। এই ম্যাচ দিয়ে খেলায় ফিরছেন তামিম ইকবাল। চট্টগ্রামে তার দলে অধিনায়কত্ব করবেন মুমিনুল হক। তার কাছেও মনে হচ্ছে এবারের লীগটা আড়ম্বরপূর্ণ হচ্ছে, 'আমার কাছে মনে হয় খুব জাঁকজমকপূর্ণ টুর্নামেন্ট হবে। সবার ফোকাসটা অনেক বেশি থাকবে। খুব ভালো একটা প্রতিযোগিতা হবে।' জাতীয় দলের সতীর্থ তামিমের কাছে খুব বেশি কিছু চাওয়া নেই বলে জানান তিনি, 'প্রত্যাশা খুব বেশি নয়। প্রত্যাশা বেশি হলে ঝামেলা। তিনি যতটুকু দেবেন ততটুকুই ভালো। আমি জানি তিনি কতটুকু খেলতে পারবেন। তিনি যেদিন খেলবেন সেদিন আর কাউকে খেলতে হবে না। এটা সবাই জানে।' মুমিনুল সদ্যই শ্রীলংকা থেকে চার দিনের ম্যাচের ক্রিকেট সিরিজ খেলে এসেছেন। তিনি সেঞ্চুরিও করেছেন স্বাগতিকদের বিপক্ষে। জাতীয় লীগেও ধারাবাহিকতা রাখতে চান।

মেট্রোর বাঁহাতি স্পিনার ইলিয়াস সানি চান প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ খেলা। এবার তারা গুরুত্ব দিচ্ছেন প্রথম ইনিংসে বড় স্কোর করার ওপর। আর লীগে ধারাবাহিক হতে চান ম্যাচ ধরে। বাঁহাতি এ স্পিনার দলের প্রতিনিধি হয়ে জানান, 'যখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের একজন পারফরমার ঘরোয়া ক্রিকেটে আসে, তখন এর অনেক বড় একটি প্রভাব পড়ে। গত বছর সে আমাদের সঙ্গে ছিল না, এবার আছে। এটা আমাদের জন্য অনেক বড় প্রাপ্তি। আমরা এবার পরিকল্পনা করেছি অন্যভাবে। আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ এগিয়ে যেতে চাই। এবারের মূল লক্ষ্য টায়ার-১-এ ওঠা।'

ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে ঢাকা বিভাগের প্রতিপক্ষ রাজশাহী বিভাগ। এই ম্যাচে জমাট লড়াকু হওয়ার সম্ভাবনা দেখছেন নাদিফ চৌধুরী। ঢাকার দলনেতা বলেন, 'আমাদের দলটা ভালো, ভারসাম্য আছে। আশা করি প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ক্রিকেট খেলতে পারব। আর এবার তো সবাই ফিট। বিপ টেস্ট দিয়ে খেলছে। ভালো না করার কোনো কারণ দেখি না।' রাজশাহীর অধিনায়ক জহুরুল ইসলাম অমি জানান, মুশফিকুর রহিম, শফিউল ইসলামদের নিয়ে ভালো দল হয়েছে। তবে ২২ গজে ভালো করার চ্যালেঞ্জ দেখছেন তিনি, 'ব্যাটিং এবং বোলিং মিলে আমরা ভালো দল। জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা থাকায় ম্যাচটা জমবে। আমরা চাই সেরা ক্রিকেট খেলতে। যদিও মিডল অর্ডারের একজন ভালো ব্যাটসম্যানকে আমরা পাচ্ছি না বিপ টেস্টে পাস করতে না পারায়। এর পরও বলব, ভারসাম্যপূর্ণ দল হয়েছে আমাদের।'

© সমকাল ২০০৫ - ২০২০

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ (প্রিন্ট), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) | ইমেইল: samakalad@gmail.com (প্রিন্ট), ad.samakalonline@outlook.com (অনলাইন)