সুরের অতলে ডুব

১০ অক্টোবর ২০১৯

আল নাহিয়ান

সাত সুরের সঙ্গে তার সখ্য, ক্ষণে ক্ষণে তাই ডুব দেন সুরের অতলে। হাবিব ওয়াহিদ সেই সঙ্গীত স্রষ্টাদেরই একজন যিনি সৃষ্টির নেশায় ব্যাকুল সারাক্ষণ। মাঝে অনেক দিন কেবল নিজের সুরে নিজে গেয়েছেন। এখন তার সুর ছড়িয়ে দিচ্ছেন তরুণ শিল্পীদের কণ্ঠে। এমন নয় যে, তিনি আগে অন্যান্য শিল্পীকে নিয়ে গান করেননি। করেছেন, তবে তার বেশির ভাগই চলচ্চিত্র, নয়তো কোনো একক বা দ্বৈত অ্যালবামের জন্য। এখন তিনি যা করেছেন, তা অনেকটা ধারাবাহিক কাজ। তরুণ বিভিন্ন শিল্পীকে নিয়ে একের পর এক গান তৈরি করছেন এবং তা একক গান হিসেবে প্রকাশও করেছেন। তার সুর ও সঙ্গীতায়োজনে এরই মধ্যে কণ্ঠশিল্পী পড়শী 'আবাহন' ও লিজা 'এক যমুনা' শিরোনামের গান দুটি গেয়ে দর্শক-শ্রোতার প্রশংসা কুড়িয়েছেন। এ ছাড়া নবীন শিল্পী টি কে তারেক শ্রোতার মনোযোগ কেড়েছেন 'অভিমানী প্রেম' শিরোনামের একটি গান করে। এবার হাবিবের সুরে গাইলেন ক্লোজআপ ওয়ান তারকা সালমা। গুঞ্জন রহমানের লেখা সালমার এই নতুন গানের শিরোনাম 'দূর অজানায়'। বেশির ভাগ সময় সালমাকে ফোক ঘরানার গান গাইতে দেখা যায়। এবার হাবিব তার জন্য সুর করেছেন মোলো-রোমান্টিক গানের। হাবিবের সুরে গাইতে পেরে দারুণ উচ্ছ্বসিত সালমা। অন্য শিল্পীরাও হাবিবের সুর-সঙ্গীতে গাওয়া নিয়ে ভালো লাগার কথা প্রকাশ করেছেন।

এখন কথা হলো- হঠাৎ করে হাবিব তরুণ শিল্পীদের নিয়ে মেতে উঠেছেন কেন? এর উত্তরে হাবিব ওয়াহিদ বলেন, 'প্রথমত আমি একটি গানের প্ল্যাটফর্ম চেয়েছিলাম, যেখানে নিজের সৃষ্টিকর্ম স্থান পাবে। এইচডব্লিউ ইউটিউব চ্যানেল সেই প্ল্যাটফর্ম যেখানে একান্ত নিজের মতো করে কাজগুলো তুলে ধরছি। তবে এই চ্যানেলে শুধু নিজের গাওয়া গান প্রকাশ করব, সেটি ভাবলে ভুল হবে। যে কাজগুলো একান্ত নিজের মতো করে তৈরি করতে পারব, সেগুলো নিজের চ্যানেলে প্রকাশ করব; এবং তা শুধু নিজ কণ্ঠের গান নয়, নিজের সুর ও সঙ্গীত পরিচালনার কাজগুলোও এতে থাকবে। দ্বিতীয় কারণ, তরুণ কিছু শিল্পীর কণ্ঠ ও গায়কি আমাকে মুগ্ধ করেছে। যেজন্য তাদের নিয়ে নিরীক্ষাধর্মী কিছু কাজ করতে চেয়েছি। সুর-সঙ্গীতের কাটাছেঁড়া করে কিছু গান তৈরির চেষ্টা করেছি। সেগুলো একে একে বিভিন্ন শিল্পীকে দিয়ে গাওয়াচ্ছি। তেমনই দুটি গান পড়শীর 'আবাহন' ও লিজার 'এক যমুনা'। এই দুই শিল্পীর পর এবার সালমার কণ্ঠে 'দূর অজানায়' শিরোনামের নতুন একটি গান রেকর্ড করলাম, যা শিগগিরই এইচডব্লিউ ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ করা হবে। এভাবেই একে একে আরও কিছু গান বিভিন্ন শিল্পীকে দিয়ে গাওয়ানোর ইচ্ছা আছে।' হাবিবের এ কথা থেকে জানা গেল তরুণ শিল্পীদের নিয়ে কাজ করার কারণ। এখন প্রশ্ন হলো পুরনো গানও তিনি নতুন করে প্রকাশ করছেন, এর কারণ কী? এ প্রশ্নের জবাবে হাবিব বলেন, 'সৃষ্টি কখনও শতভাগ পূর্ণতা পায় না। হাজার কাটাছেঁড়ার পর মনে হয়, কী যেন বাকি থেকে গেল! তেমনই প্রিয় কিছু গান নতুন সঙ্গীতায়োজনে প্রকাশ করতে চাইছি। 'ঝরা পাতা' পিয়ানো ভার্সন, 'আবাহন' রিমিক্স ভার্সন প্রকাশমূলে ছিল আত্মতুষ্টির খোঁজ। এ গানগুলো নিয়ে অনেকে ভালো লাগা প্রকাশ করেছেন। এরপর আমার মনে হয়েছে, এ গানগুলোর সঙ্গীতায়োজনে আরও কিছুটা ভিন্নতা আনা যেতে পারত। সেই ভাবনা থেকেই নতুন করে সঙ্গীতায়োজন করা।' হাবিবের এ কথার পরিপ্রেক্ষিতে জানাতে চাওয়া, আগামীতে তার জনপ্রিয় আরও কিছু গান নতুন করে প্রকাশের সম্ভাবনা আছে কিনা? এর উত্তরে হাবিব বলেন, 'সব গানের রিমেক করতে হবে- এমন কোনো কথা নেই। তবে আরও কিছু গান রিমেক করব না, এটাও বলছি না। যা হবে তা সময়ই বলে দেবে। আসলে সুরের নেশায় ডুবে থাকি। ছন্দোবদ্ধ সুর-সঙ্গীত যখন মগজের কোষে কড়া নাড়ে, তখনই তা লুফে নেওয়ার চেষ্টা করি। এরপর আসলে সিদ্ধান্ত নিই তা কীভাবে কাজে লাগাব। তবে যত কিছুই করি, ভক্তদের জন্য নতুন গানের আয়োজন থেমে থাকবে না- এটুকু প্রতিশ্রুতি দিতে পারি।' হাবিবের মুখে এ কথা শোনার পর ভক্তরা নিশ্চয় এটাই চাইবেন- সাত সুরের এই প্রেমিক সৃষ্টির নেশাতেই ডুবে থাকুন।'

© সমকাল 2005 - 2019

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭ (প্রিন্ট পত্রিকা), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) । ইমেইল: [email protected]