ময়মনসিংহের ফুলপুরে শ্বশুরবাড়ি থেকে মো. শফিকুল ইসলাম (৩৭) নামে এক ব্যক্তির ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে মরদেহটি উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে শফিকুলের শ্বশুরবাড়ির লোকজন পলাতক রয়েছে।

মারা যাওয়া মো. শফিকুল ইসলাম শেরপুর জেলার নকলা উপজেলার হাছনখিলা গ্রামের আশরাফ আলীর ছেলে ও উপজেলার রামভদ্রপুর ইউনিয়নের আবদুল খালেকের জামাতা।  

পুলিশ জানায়, ১০ বছর আগে আবদুল খালেকের মেয়ে খাদিজাকে বিয়ে করেন শফিকুল। তাদের সংসারে একটি কন্যা সন্তানও রয়েছে। গাজীপুর এলাকায় চা দোকান করতেন শফিকুল। পারিবারিক বিরোধে গত ঈদের পর স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়ার এক পর্যায়ে বিচ্ছেদ হয়। তার পরেও গত বুধবার শফিকুল স্ত্রীর বাবার বাড়িতে যান তাকে সংসারে ফেরাতে। পরে শ্বশুরের ঘরের পেছনে একটি কাঁঠাল গাছে শফিকুলের লাশ ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে শফিকুলের শ্বশুর বাড়ির সকল লোকজন পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

ফুলপুর থানার ওসি মো. আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, মৃত্যুটি রহস্যজনক মনে হচ্ছে। মৃত্যুর সঠিক কারণ জানতে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। নিহতের শ্বশুর বাড়ির সবাই পলাতক রয়েছে। শফিকুলের পরিবারের লোকজনকে খবর দেওয়া হয়েছে। তাদের অভিযোগের ভিত্তিতে পরবর্তী আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।