দুধ সবার জন্য আদর্শ খাবার। দুধে থাকা ক্যালসিয়াম হাড় মজবুত রাখে। দুধ খেলেই শরীরে পর্যাপ্ত ক্যালসিয়ামের অভাব অনেকটা মিটে যায়। ১০০ গ্রাম দুধে ক্যালসিয়ামের পরিমাণ প্রায় ১২৫ মিলিগ্রাম। তবে দুধ কিংবা দুগ্ধজাতীয় খাবারে অনেক শিশুরই অ্যালার্জি থাকে। অনেকে আবার দুধ খেতে পছন্দও করে না। সেক্ষেত্রে ক্যালসিয়ামের ঘাটতি পূরণে দুধের বিকল্প হিসেবে কিছু খাবার বেছে নিতে হবে।

চিকিৎসকদের মতে,শিশুদের শরীরে ক্যালসিয়ামের ঘাটতি মেটাতে টোফু কিংবা সয়া মিল্ক খাওয়ানো যেতে পারে। তবে সেগুলি বাদ দিলেও প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় প্রচুর পরিমাণে শাকসব্জি খেলে তবেই হাড়ের শক্তিবৃদ্ধি হবে, ক্যালসিয়ামের ঘাটতি মিটবে।

এছাড়াও আরও যেসব খাবার খাওয়া যেতে পারে-

১. দুধের বিকল্প হিসেবে শিশুদের কাঁচা ছোলা এবং কলাইয়ের ডাল খাওয়ানো যেতে পারে। কাঁচা ছোলা রোজ সকালে ভিজিয়ে শিশুকে খাওয়াতে পারেন। গোটা মুগ অর্থাৎ তড়কার ডালেও প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম। এ ছাড়া রাজমা এবং মুসুর ডালেও ভরপুর ক্যালসিয়াম পাওয়া যায়।

২. প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় নটে শাক, মেথি শাক এবং ফুলকপির পাতা রাখলেও ক্যালসিয়ামের চাহিদা মিটেবে। এছাড়া সজনে শাক, কচুর শাক, কারিপাতাতেও প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম পাওয়া যায়।

৩. অনেক শিশুই শাক খেতে চায় না। সেক্ষেত্রে তাদের খাদ্যতালিকায় শুকনো নারকেল, কাঠবাদাম, তিল রাখতে পারেন।