মাছের তেল ক্যান্সার প্রতিরোধী নয়

প্রকাশ: ০১ মার্চ ২০২০   

অনলাইন ডেস্ক

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিডের যে উপকারিতা পাওয়া যায়, তার ছিঁটেফোঁটাও নেই মাছের তেল বা তার সাপ্লিমেন্টগুলোতে। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় বিজ্ঞানীরা এমনই জানিয়েছে।

বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ, রোজ রোজ সাপ্লিমেন্ট নিলেও উপকার হবে না। বরং ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড সরাসরি গ্রহণ করলে, শরীর অনেক সুস্থ থাকে। হৃদরোগ, ক্যান্সারের মতো রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা অনেকটাই কমে। 

এক বছর ধরে অন্তত হাজার জনের উপর সমীক্ষা চালিয়ে এই ফল পেয়েছেন আরবের অ্যাংলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা।

২০১৮ সাল থেকে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিডের সাপ্লিমেন্ট নিয়ে গবেষণার উদ্যোগ নিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। সেইমতো কাজ শুরু করেছেন বিজ্ঞানীরা। গত এক বছর ধরে অন্তত এক লাখ লোকের উপর ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিডের বিকল্প খাদ্যগ্রহণ নিয়ে সমীক্ষা করা হয়েছে। তাতে তারা দেখেছেন, টানা যারা সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করছেন, তাদের রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতায় কোনও বদল হয়নি।

আরবের নরউইচ মেডিকেল স্কুলের বিজ্ঞানী ডক্টর লি হুপারের কথায়, ‘এর আগেকার সমস্ত গবেষণা আমাদের ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসডের বিকল্প নিয়ে আশা দেখিয়েছিল। এমনকী প্রস্টেট ক্যান্সার রুখতে বেশ ভালমতো সাহায্য করে বলে জানা গিয়েছিল। কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে, মাছের তেলের মতো খাবার হৃদরোগ, ডিমেনশিয়া, ডায়বেটিস, উদ্বেগ- এগুলোর কোনও কিছুই কমাতে সাহায্য করে না।’

এই মুহূর্তে বিশ্ব বাজারে প্রায় ৩৩ বিলিয়ন ডলারের বাণিজ্য চলছে এই সাপ্লিমেন্ট নিয়ে। কিন্তু গবেষণার রিপোর্ট প্রকাশের পর সেই বাজার পড়ে যাওয়ার আশঙ্কাও থাকছে। এই অবস্থায় বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ, রোজ রোজ সাপ্লিমেন্টারি খাওয়ার পথ ছেড়ে বরং সপ্তাহে দু’দিন তৈলাক্ত মাছ খান, তাতেই শরীরে রোগ প্রতিরোধী ক্ষমতা যথেষ্ট গড়ে উঠবে। সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন