কোন কোন খাবার একসঙ্গে খাওয়া ঠিক নয়

প্রকাশ: ২১ অক্টোবর ২০১৯      

অনলাইন ডেস্ক

অনেকেই না জেনে একসঙ্গে এমন অনেক খাবার খান যা খেলে শরীরে বিষক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। বিশেষজ্ঞদের মতে, কিছু কিছু খাবার আছে যে গুলো একসঙ্গে খেলে মারাত্মক অসুখের পাশাপাশি মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে।

অনেকেই সকালের নাস্তায় দুধের সঙ্গে ফল খান। এটা ঠিক নয়। বিশেষ করে দুধের সঙ্গে টক ফল অর্থাৎ সাইট্রাস জাতীয় ফল খেলে গ্যাস্ট্রিকের ঝুঁকি বাড়ে। একই ভাবে কলা আর মাছ একসঙ্গে খেলে শরীরে সমস্যা তৈরি হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দেয়। এছাড়া আরও যেসব খাবার একসঙ্গে খাওয়া ঠিক নয়-

১. দুধে প্রাণিজ প্রোটিন থাকায় এর সঙ্গে ভাজাপোড়া বা নোনতা খাবার খেলে হজমের নানা সমস্যা হতে পারে। কারণ, নোনতা খাবারের মধ্যে থাকা লবণ দুধকে জমিয়ে দেয়। একই ভাবে অড়হড় ডাল বা তিল থেকে তৈরি খাবারের সঙ্গেও দুধ খাওয়া ঠিক নয়।

২. বেশিরভাগ মানুষই পিৎজা, বার্গার বা ফাস্ট ফুড জাতীয় খাবারের সঙ্গে কোমল পানীয় খেতে পছন্দ করেন। কিন্তু দুই ধরনের খাবারের মধ্যেই আলাদা মাত্রার এসিড থাকায় এটি পেটের রোগ সৃষ্টি করে।

৩. টক আর মিষ্টি ফল একসঙ্গে খেলে টক ফলের এসিড মিষ্টি ফলের মধ্যে থাকা সুগার নষ্ট করে। এতে হজমের সমস্যা হয়।

৪. খাবারের পরেই চা খাওয়া শরীরের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। এতে এসিডিটি বাড়ে। 

৫. রুটির সঙ্গে দই খেলেও পরোটার সঙ্গে কখনোই এটি খাওয়া ঠিক নয়। কারণ, পরোটা আর দই দুটির মধ্যেই ফ্যাট থাকে। এ গুলো একসঙ্গে খেলে হজম করা কষ্ট হয়। সেই সঙ্গে ওজনও বাড়ে।

৬. দই আর মাছ একসঙ্গে খেলে অ্যালার্জি হতে পারে। এতে হজমে সমস্যাও দেখা দেয়।

৭. দুধ থেকে দই তৈরি হয়। যে কারণে দুধের সঙ্গে ফল খাওয়া ঠিক নয় সেই একই কারণে দইয়ের সঙ্গেও ফল খাওয়া ঠিক নয়। 

৮. মধু আর মাখন একসঙ্গে খাওয়া ঠিক নয়। কারণ, মধু শরীর গরম করে। অনেকেই হয়ত জানেন না, ঘি-মাখন শরীর ঠাণ্ডা করে। তাই এ দুই বিপরীত মেরুর খাবার একসঙ্গে খেলে শরীরে বিপর্যয় ঘটতে পারে।

৯.  মাছ আর গোলমরিচ একসঙ্গে খাওয়া ঠিক নয়। এতে হজমের সমস্যা হয়।

১০. দুধ-ঘি কখনোই কাঁসার বাসনে রেখে খাওয়া ঠিক নয়। এতেও পেটে সমস্যা তৈরি হয়। সূত্র : এনডিটিভি