খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মাহমুদ হোসেন বলেছেন, আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে ডোপটেস্টের মাধ্যমে শিক্ষার্থী ভর্তির চিন্তাভাবনা রয়েছে। শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগের সময় তাদের ডোপটেস্টের প্রত্যয়ন বাধ্যতামূলক করার বিষয়টিও ভাবা হচ্ছে।

সোমবার সকালে ক্যাম্পাসে মাদকবিরোধী শোভাযাত্রা শেষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রবিষয়ক পরিচালকের দপ্তর ও স্বেচ্ছায় রক্তদান সংগঠন বাঁধনের আয়োজনে এই শোভাযাত্রা বের হয়।

উপচার্য বলেন, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস মাদকমুক্ত রাখতে ইতোমধ্যে একটি মাদকবিরোধী কমিটি গঠন করা হয়েছে। তিনি সব ছাত্রসংগঠনকে সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ক্যাম্পাসকে মাদকমুক্ত রাখার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অমিত রায় চৌধুরী, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক খান গোলাম কুদ্দুস, ছাত্রবিষয়ক পরিচালক অধ্যাপক মো. শরীফ হাসান লিমন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বাঁধন বিশ্ববিদ্যালয় সভাপতি ডানা শিকদার।

খুবির ছাত্রবিষয়ক পরিচালক বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো সংগঠনের সদস্যের বিরুদ্ধে মাদক সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পেলে তার দপ্তর থেকে কোনো প্রত্যয়নপত্র দেওয়া হবে না।

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা বাঁধনের সভাপতির লিখিত ইশতেহারে বলেন, মাদক সংশ্লিষ্টতা থাকলে কেউ এই সংগঠনের সদস্য হতে পারবেন না। এছাড়া কারও বিরুদ্ধে মাদকে জড়ানোর প্রমাণ পেলে তার সদস্যপদ বাতিল করা হবে।