কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলায় মহিষাডোরা এলাকায় দফাদার পাম্পের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় রাজিব আহমেদ (৩১) নামে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে। ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার তিনি মারা যান। রাজিবের শরীরের ৮০ ভাগ অগ্নিদগ্ধ হয়। ডাক্তারের পরামর্শে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা পাঠানো হয়েছিল।

পুলিশ জানায়, নিহত রাজিব দফাদার তেলপাম্পের কর্মচারী ছিলেন। তার বাড়ি দৌলতপুর উপজেলার আমদহ গ্রামে। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ৩ জনের মৃত্যু হলো। আগুনে দগ্ধ হয়ে রিমন ও বিদ্যুৎ নামে আরও দু’জন ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাদের অবস্থাও শঙ্কামুক্ত নয়।

পুলিশের ভেড়ামারা সার্কেলের এডিশনাল এসপি ইয়াসির আরাফাত বলেন, নিহতের ঘটনায় কেউ অভিযোগ না করায় কোনো মামলা হয়নি। জেলা প্রশাসকের নির্দেশে ঘটনার তদন্তে একটি টিম গঠন করা হয়েছে। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় কারও সংশ্লিষ্টতা বা গাফিলতি প্রমাণিত হলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার রাত ৮টার দিকে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারার ধরমপুর ইউনিয়নের কুষ্টিয়া-প্রাগপুর সড়কের পাশে মহিষাডোরা এলাকার দফাদার ফিলিং স্টেশনে ট্যাংক থেকে তেল আনলোড চলছিল। এ সময় হঠাৎ করেই আগুনের সূত্রপাত হয়। অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলে মারা যান সাহাজুল ও বিজয় নামে দু’জন তেল ক্রেতা।