কৃষি জমিতে সোলার বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের প্রতিবাদে চুয়াডাঙ্গার কৃঞ্চপুর গ্রামবাসীরা ফুঁসে উঠেছে। তাদের একমাত্র অবলম্বন ফসলি জমি বাঁচাতে বিষের বোতল হাতে ও কাফনের কাপড় পরে জেলা প্রশাসকের দপ্তরের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। ‘জমি রক্ষা না হলে তারা আত্মহত্যা করবে’ এই প্রত্যয় ব্যক্ত করে তারা বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা প্রশাসক আমিনুল সইলাম খানের কাছে স্বারকলিপি প্রদান করেছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলমের নেতৃত্বে চুয়াডাঙ্গা জেলার কৃঞ্চপুর গ্রামের কয়েক শ কৃষক বিষের বোতল ও কাফনের কাপড় পরে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসকের দপ্তরের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন শেষে স্মারকলিপি প্রদান করেন।

কৃষকরা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে প্রভাবশালীর ইন্ধনে গ্রামের জমি দখলের পাঁয়তারা করছে। ইতোমধ্যে বহিরাগত এক ব্যক্তির কয়েক বিঘা জমি নিয়ে ফসল উজাড় করে সেখানে সোলার বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের সাইনবোর্ডসহ প্রাথমিক কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক বলেন, সরকারের যেহেতু নির্দেশনা রয়েছে কোনো কৃষি জমিতে স্থাপনা হবে না সেক্ষেত্রে বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখা হবে। কৃষকরা যেন তাদের জমিতে ফসল আবাদ করে খেতে পারে সেদিকে আমার সার্বিক সহযোগিতা থাকবে।