নড়াইল সদরের মির্জাপুর ইউনাইটেড ডিগ্রি কলেজে অধ্যক্ষকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় সর্বশেষ গেপ্তার হওয়া নূর নবীর বিরুদ্ধে তিন দিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর হয়েছে। আজ বুধবার থেকে শুরু হয়ে আগামী শুক্রবার পর্যন্ত এ রিমান্ড কার্যকর হবে।

বুধবার সদর আমলি আদালতে রিমান্ড শুনানী শেষে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমাতুল মোর্শেদা এই তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

অধ্যক্ষ লাঞ্ছিতের মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সদর থানার ওসি (চলতি দায়িত্বে) মো. মাহামুদুর রহমান বলেন, বুধবার থেকে নূর নবীর বিরুদ্ধে রিমান্ড কার্যকরী হবে। অন্যদিকে রিমান্ডে আনা চার জন মির্জাপুর গ্রামের শাওন, মনিরুল, রিমন ও রুখালি গ্রামের রনিকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। আজ তাদের রিমান্ড শেষ হবে। বৃহস্পতিবার দুপুরের আগে তাদের হাজতে পাঠানো হবে।

ওসি বলেন, জিঞ্জাসাবাদে কিছু তথ্য পাওয়া গেছে। তবে তদন্তের স্বার্থে সেটা জানানো যাচ্ছে না।

গত ১৮ জুন নড়াইল সদরের মির্জাপুর ইউনাইটেড ডিগ্রি কলেজের ছাত্র রাহুল দেব রায় ফেসবুকে মহানবী (সাঃ) কে নিয়ে অবমাননাকারী সদ্য বহিস্কৃত ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি নেত্রী নূপুর শর্মাকে নিয়ে এক পোস্ট দেন। এ নিয়ে কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসকে জুতার মালা পরিয়ে লাঞ্চিত করা হয়। এ ছাড়া ফেসবুকে পোস্ট দেওয়ার ঘটনায় অভিযুক্ত রাহুলকে গ্রেপ্তার করে তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়। সে এখন হাজতে। অপরদিকে অধ্যক্ষ লাঞ্ছিতের মামলায় ১৭০-১৮০ জনকে আসামি করা হয়েছে।