আবিদ আজাদ বাংলা ভাষার একজন আধুনিক কবি। তাঁর কবিতা লিরিকধর্মী, অনুচ্চকণ্ঠ এবং চিত্রময়। সত্তরের দশকে কবিতার ভুবনে আবিদ আজাদের আবির্ভাব। প্রথম কাব্যগ্রন্থ 'ঘাসের ঘটনা' (১৯৭৬) প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গেই তরুণতম কবি হিসেবে পাঠক ও বোদ্ধামহলের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সমর্থ হন। ষাটের দশকের সংগ্রাম, সংঘাত, আন্দোলন, একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ সত্তরের কবিদের মানস গঠনে ক্রিয়াশীল ছিল। আবিদ আজাদও এর ব্যতিক্রম নন।
তাঁর প্রথম কাব্যগ্রন্থ ঘাসের ঘটনা চিহ্নিত হয়ে আছে এক মাইলফলক হিসেবে। প্রথম কাব্যেই বিদগ্ধ পাঠক আবিস্কার করেন টাটকা আর বিচিত্র সব চিত্রকল্পের ভেতরে ঘাসের ডগায় ভোরের শিশির, যেখানে সূর্যরশ্মি বর্ণিল বিভাস সৃষ্টি করে চলেছে।
'ঘাসের ঘটনা'র কবিতাগুলো আদ্যোপান্ত আবেগশাসিত ও রোমান্টিক আতিশয্যে আক্রান্ত। আবিদ আজাদের অধিকাংশ কবিতার উৎস স্মৃতি, তার বাহন গল্পময়তা। আর স্মৃতিনির্ভর বলেই তাঁর কবিতাও হয়ে ওঠে নস্টালজিক। এই নস্টালজিয়ায় শহর ও গ্রাম উভয়ই মিশে আছে।
আজ মনে পড়ছে সেইসব মুঠোবন্দি জোনাক পোকার দুঃখ
হাওয়ার হাওরে ছইনৌকার মতো একরত্তি পাখি
গলার নিচের দিকে অদ্ভুত নরম নীল রোঁয়া
উঠোনমনির মুখ, ভোরবেলাকার হিমভেজা কার চোখ
আগডুম বাগডুম চারিদিক, বাক দিচ্ছে সুন্দর মোরগ।
(দুঃখ : আমার মন কেমন করে)

পরিবর্তনশীল সমাজকাঠামোর ভিতরেই সারাক্ষণ কবিতামগ্নতায় আচ্ছন্ন ঘোরলাগা এক কবির নাম আবিদ আজাদ। কবিতা রচনায় একেবারেই নির্ভেজাল ও সৎ। আবিদ আজাদ সত্তরের দশকের বিতৃষ্ণা ও অবক্ষয়ের মধ্যে বাস করে, এমনকি কৃত্রিম নাগরিক সংস্কৃতির মধ্যে অবস্থান করেও বাংলা কবিতার রোমান্টিক লোকজ জীবনদৃষ্টি গভীরভাবে উপস্থাপন করেছেন। নাগরিক নয় বরং শহরকেন্দ্রিক কবি হিসেবে আবিদ আজাদ বাংলা কবিতায় হারিয়ে যাওয়া স্বভাবজ গীতলতা ও সবুজের ঝংকার ফিরিয়ে এনেছিলেন। এটা তাঁর কোনো আরোপিত উপলব্ধি নয়, যে মাটি থেকে উঠে এসেছেন তিনি, সেই মাটির গন্ধ ভেতর থেকে তাঁকে টেনে এনেছে লোকজ ভুবনে। প্রথম কাব্যগ্রন্থ প্রকাশের মুহূর্তেই তাই পাঠক জেনে যান নাভিমূলে প্রোথিত এক গীতিকবির কথা। তবে চিত্রধর্মীতাই তাঁর কবিতার প্রধান বৈশিষ্ট্য। তাঁর চিত্র বাস্তবধর্মী এবং কল্পনাশ্রয়ী।
সেপ্টেম্বর ভিতরে আমার জন্ম হয়েছিল
সেই প্রথম আমি যখন আসি
অন্যমনস্কভাবে আমার এই পুনর্জন্ম দেখেছিল
তিনজন বিষণ্ণ অর্জুন গাছ।
সেই থেকে আমার ভিতরে আজো আমি স্বপ্টম্ন হয়ে আছি-
মা,স্বপ্নের ভিতর থেকে আমি জন্ম নেব কবে?
(জন্মস্বর : ঘাসের ঘটনা)
প্রশ্ন
১। কবি আবিদ আজাদ কোন গ্রামে জন্মগ্রহণ করেছিলেন?
২। কবির সর্বশেষ কাব্যগ্রন্থের নাম কী?
৩। কাকতাড়ূয়া আবিদ আজাদের কোন ধরনের গ্রন্থ?
কুইজ ৫৮-এর উত্তর
১। ১৯৩৭ সালে
২। রিখটার্স ভেল্ড পর্বত
৩। ডিয়েগো আলভারেজ

কুইজ ৫৮-এর জয়ী
নওরোজ সুলতানা
বড়লেখা, মৌলভীবাজার

সুবর্ণ আহমেদ শুভ্র
হবিগঞ্জ
নিয়ম
পাঠক, কুইজে অংশ নিতে আপনার উত্তর পাঠিয়ে দিন ২০ জুন সোমবারের মধ্যে কালের খেয়ার ঠিকানায়। পরবর্তী কুইজে প্রথম তিন বিজয়ীর নাম প্রকাশ করা হবে। বিজয়ীর ঠিকানায় পৌঁছে যাবে পুরস্কার।