বেঁচে আছেন জানার পরও ৭৪ বছর বয়সী এক বৃদ্ধকে সারারাত রেখে দেওয়া হয়েছিল লাশ রাখার বাক্সে। পরিবারের সদস্যদের এমন কাণ্ডে ব্যপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে ভারতের তামিলনাড়ুর সালেমে। এ ঘটনায় পরে থানা-পুলিশও হয়েছে। খবর জিনিউজের।

তামিলনাড়ু পুলিশ জানিয়েছে, বালাসুব্রহ্মণ্যম কুমার নামের ওই বৃদ্ধকে কিছুদিন আগে অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। সম্প্রতি তাকে ছেড়ে দেওয়া হয় হাসপাতাল থেকে। এরপরই একটি প্রতিষ্ঠান থেকে লাশ রাখার ফ্রিজহার বক্স ভাড়া করেন বৃদ্ধের ভাই। হাসপাতাল থেকে বাড়িতে নিয়ে সেই বক্সেই ঠাঁই হয় ওই বৃদ্ধের।

জিনিউজ জানিয়েছে, গত মঙ্গলবার ওই বাক্সটি ফেরত নিতে আসেন প্রতিষ্ঠানের এক কর্মী। তিনি এসে বাক্স খুলে অবাক হয়ে যান। দেখেন এক জীবন্ত লোককে রাখা হয়েছে বাক্সে। শ্বাস নিতে না পেরে তিনি তখন হাফাচ্ছেন। পরে তার উদ্যোগেই ফের হাসপাতালে ভর্তি করা হয় ওই বৃদ্ধকে। 

পুলিশের অভিযোগ, লাশের বাক্সে রেখে ওই বৃদ্ধের মৃত্যুর জন্য অপেক্ষা করছিল তার পরিবারের সদস্যরা।

ওই বৃদ্ধকে হাসপাতাল থেকে নিয়ে যাওয়ার জন্য একটি গাড়ির ব্যবস্থা করে দিয়েছিলেন দৈবলিঙ্গম নামে এক আইনজীবী। ঘটনার খবর পেয়ে তিনিও ছুটে আসেন বৃদ্ধের বাড়িতে। তিনি বলেন, ওই বৃদ্ধকে সাররাত ওই বাক্সের মধ্যেই রেখে দেওয়া হয়েছিল। তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বললে তারা জানায়, ‘বৃদ্ধের আত্মা এখনও দেহমুক্ত হয়নি। তাই অপেক্ষা করছি।’

জানা গেছে, একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে স্টোর কিপারের কাজ করতেন ওই বৃদ্ধ। অবসর নিয়েছেন বেশ কিছুদিন আগে। বর্তমানে তিনি থাকতেন তার ভাই ও এক ভাতিজির সংসারে। এ ঘটনায় পরিবারের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ।

মন্তব্য করুন