আমিরাতে আজানের বাণী বদলে বাড়িতেই নামাজ পড়ার আহ্বান

প্রকাশ: ১৮ মার্চ ২০২০     আপডেট: ১৮ মার্চ ২০২০   

অনলাইন ডেস্ক

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ইসলাম ধর্মের রীতিতে সাধারণত মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়ার আহ্বান জানানো হয় আজান দেওয়ার মাধ্যমে। তবে এবার সংযুক্ত আরব আমিরাতে আজানের বাণী বদলে বাড়িতে থেকেই নামাজ পড়ার আহ্বান জানানো হচ্ছে।

সাধারণত নামাজ পড়ার আহ্বান জানিয়ে যে আজান দেয়া হয় তার বাণীতে একটি বাক্য হচ্ছে 'হাইয়া আলা আল-সালাহ' - যার অর্থ নামাজ পড়তে আসুন। কিন্তু আমিরাতে নতুন আজানে শোনা যাচ্ছে মুয়াজ্জিন বলছেন, 'আল-সালাতু ফি বুয়ুতিকুম' - অর্থাৎ বাড়িতে থেকে (অথবা আপনি যেখানে আছেন সেখানে থেকেই) নামাজ পড়ুন। খবর বিবিসির

করোনাভাইরাস বা কোভিড নাইনটিন বিস্তার ঠেকানোর জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাতে মসজিদে এসে নামাজ পড়া স্থগিত রাখা হয়েছে। এই স্থগিতাদেশের মেয়াদ চার সপ্তাহ। সোমবার রাতে আমিরাত সরকারের এ নির্দেশ ঘোষিত হয়।

এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোচনা শুরু হয়েছে। অনেকেই এই নতুন আজানের ভিডিও পোস্ট করে বিস্ময় প্রকাশ করছেন।

খালিজ টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়- ‌‘দ্য জেনারেল অথরিটি অব ইসলামিক এ্যাফেয়ার্স এ্যান্ড এনডাওমেন্টস’ সোমবার বলেছে, ‘মসজিদগুলো থেকে মুসল্লিদেরকে নামাজের সময়ের ব্যাপারে সচেতন করতেই শুধু আজান দেওয়া হবে। কিন্তু মসজিদের দরজা বন্ধ থাকবে।’

কুয়েতের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলছেন, আমিরাতে এখন পর্যন্ত অন্তত ১০০ জনের দেহে কোনাভাইরাস সংক্রমণ নিশ্চিত করা হয়েছে। এরই প্রেক্ষিতে আজানের বাণী বদলের এমন সিদ্ধান্ত নিল দেশটি।

এদিকে সৌদি আরবেও মসজিদে গিয়ে সব রকমের নামাজ পড়া স্থগিত করা হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে শুধু মাত্র মক্কায় ইসলাম ধর্মের পবিত্রতম স্থান এবং আল-মদিনার মসজিদ দুটিকে এ নির্দেশের বাইরে রাখা হয়েছে।