লরি থেকে উদ্ধার ৩৯ লাশই ভিয়েতনামের নাগরিকদের

প্রকাশ: ০২ নভেম্বর ২০১৯      

অনলাইন ডেস্ক

লরি থেকে উদ্ধার হওয়া সবগুলো লাশই ভিয়েতনামের নাগরিকদের বলে জানিয়েছে পুলিশ -বিবিসি

যুক্তরাজ্যের এসেক্সে একটি কন্টেইনার লরি থেকে উদ্ধার করা ৩৯টি লাশই ভিয়েতনামের নাগরিকদের বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে উদ্ধারের পর প্রাথমিকভাবে লাশগুলো চীনের নাগরিকদের বলে ধারণা করা হয়েছিল। খবর বিবিসির।

এসেক্স পুলিশের সহকারী প্রধান কনস্টেবল টিম স্মিথ বলেন, এই মুহূর্তে, আমাদের ধারণা মারা যাওয়া ব্যক্তিরা ভিয়েতনামের নাগরিক। এ বিষয়ে আমরা ভিয়েতনাম সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করছি।

অন্যদিকে এ ঘটনায় লন্ডনে ভিয়েতনামি দূতাবাসের পক্ষ থেকে গভীর দুঃখ প্রকাশ করা হয়েছে। নিহতদের পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানিয়ে দূতাবাস এক বিবৃতিতে বলেছে, মারা যাওয়া ব্যক্তিদের পরিচয় শনাক্ত করা দরকার। ভিয়েতনাম ও যুক্তরাজ্যের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে এ ব্যাপারে এগিয়ে আসতে হবে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, প্রিয়জনদের লাশ বাড়ি ফিরিয়ে আনতে তারা ভিয়েতনাম ও যুক্তরাজ্যের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে সহায়তা করতে ইচ্ছুক।

ভিয়েতনামের নিখোঁজ কৃষক ৩০ বছর বয়সী লে ভ্যান হার বাবা বিবিসিকে বলেন, তিনি নিশ্চিত যে মৃত লোকজনের মধ্যে তার ছেলেও রয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে গ্রেইস শহরের ওয়াটারগ্লেইড শিল্প পার্ক এলাকায় পার্ক করে রাখা একটি লরি থেকে ৩৯ মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ওই দিনই লরিটির চালক ২৫ বছর বয়সী মরিস রবিনসন আটক করা হয়। পরে ৩৯ জনকে হত্যার পাশাপাশি তার বিরুদ্ধে মানব পাচার, অভিবাসন ও অর্থ পাচারেরও অভিযোগ আনে এসেক্স পুলিশ। তিনি নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডের আর্মাগ কাউন্টির পোর্টাডাউনের বাসিন্দা।