চিত্রনায়ক জায়েদ খানকে ভালো ছেলে বলে মন্তব্য করেছেন আরিফা পারভীন জামান মৌসুমী।

জায়েদ খানের সঙ্গে ওমর সানীর দ্বন্দ্ব নিয়ে সাংবাদিকদের কাছে পাঠানো ভয়েস মেসেজে এ মন্তব্য করেন জনপ্রিয় এ অভিনেত্রী। 

এর আগে রোববার জায়েদ খানের বিরুদ্ধে সুখের সংসার ভাঙার চেষ্টার অভিযোগ এনে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি বরাবর অভিযোগ করেছিলেন চিত্রনায়ক ওমর সানী।

মৌসুমী বলেন, আমি জায়েদকে অনেক স্নেহ করি। ও আমাকে যথেষ্ট সম্মান করে। আমাদের মধ্যে যতটুকু কাজের রিলেশন, খুবই ভালো একটা রিলেশন। সে কিন্তু আমাকে অসম্মান করার কোনো প্রশ্নই উঠে না। ওর মধ্যে আমি এ ধরনের মন মানসিকতা আমি দেখিনি। 

‘তারপরও বলব ও অনেক ভালো ছেলে। সে কখনও আমাকে অসম্মান করেনি’, যোগ করেন এ অভিনেত্রী।

মৌসুমী বলেন, ‘কেন এই প্রশ্নটা বারবার আসছে, সে আমাকে বিরক্ত করছে- উত্ত্যক্ত করছে, এই জিনিসটা আমার আসলে... জানি না এটি কেন হচ্ছে। এটি যদিও একান্ত আমাদের ব্যক্তিগত সমস্যা। সে সমস্যা আমাদের পারিবারিকভাবেই সমাধান করা দরকার ছিল। আমি মনে করি, এখানে জায়েদের খুব একটা দোষ আমি পাইনি।’

শুক্রবার রাজধানীর একটি কনভেনশন সেন্টারে রাজকীয় আয়োজনে বিয়ে সম্পন্ন হয় প্রযোজক ও অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজলের বড় ছেলের। এই বিয়ের অনুষ্ঠানে চিত্রনায়ক ওমর সানীকে পিস্তল দিয়ে গুলি করার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠে চিত্রনায়ক জায়েদ খানের বিরুদ্ধে। 

বিয়েতে উপস্থিত কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছিলেন, আমরা যতটুকু জানি মৌসুমীর সঙ্গে নাকি জায়েদ খান খারাপ আচরণ করেছেন। এটি নিয়ে জায়েদের ওপর মৌসুমীর স্বামী ওমর সানী ভীষণ বিরক্ত হন। এ বিষয়ে ডিপজলের কাছে বিচারও চান ওমর সানী। ডিপজল উভয়কে ঠাণ্ডা থাকতে বলে দেন। উভয়কে উভয়ের থেকে দূরে থাকার পরামর্শও দেন। 

তবে ঘটনা সেখানে থেমে থাকেনি। ডিপজলের ওই সমাধান ওমর সানীর ভালো লাগেনি। মেনেও নেননি। তাই জায়েদ খানকে ডিপজলের ছেলের বিয়েতে পেয়েই চড় মেরে বসেন এবং বলেন, তোরে (জায়েদ) না নিষেধ করছি, আমার বউরে বিরক্ত না করতে। কোনো ফাজলামি করবি না। অসম্মান করে কথা বলবি না।

ওমর সানীর চড় ও এমন সব কথা শুনে জায়েদ খান কোমর থেকে পিস্তল বের করে বলেন, ‘গুলি করে দেব।’ 

তবে জায়েদ খানের দাবি, এটি মিথ্যা খবর। এমন কোনো ঘটনাই বিয়েতে ঘটেনি। আমি পিস্তল নিয়ে যাইনি। ওই এলাকায় পিস্তল নিয়ে যাওয়াও যায় না। আর ওমর সানীর চড় মারার তো প্রশ্নই আসে না।

আরও পড়ুন>> ওমর সানীর চড় খেয়ে পিস্তল বের করে গুলির হুমকি জায়েদের

আরও পড়ুন>> ডিপজল বললেন, সানীর চড় ও জায়েদের পিস্তল বের করার ঘটনা ঘটেনি

আরও পড়ুন>> জায়েদ মিথ্যা বলছে, সে চড় খেয়েছে, পিস্তলও বের করেছে: ওমর সানী

এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি বরাবর করা অভিযোগে ওমর সানী লেখেন, আমি, ওমর সানী, সমিতির একজন সদস্য এবং সাবেক কমিটির সহ-সভাপতি ছিলাম। দীর্ঘ ৩২ বছর যাবৎ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে আসছি। কিন্তু দুঃখের বিষয় এই যে, সমিতির সদস্য জায়েদ খান গত চার মাস ধরে আমার স্ত্রী আরিফা পারভীন জামান মৌসুমীকে নানাভাবে হয়রানি ও বিরক্ত করে আসছেন। আমার সুখের সংসার ভাঙার জন্য বিভিন্ন কৌশলে তাকে হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা করে আসছেন। এ ব্যাপারে তাকে হোয়াটসঅ্যাপে মেসেজ দিয়ে বারবার বোঝানোর চেষ্টা করেছি। তার প্রমাণ আমার এবং আমার ছেলের কাছে আছে। 

অভিযোগে তিনি আরও লেখেন, তা ছাড়া মুরুব্বি হিসেবে আমি ডিপজল ভাইয়ের কাছে এই বিষয়ে অভিযোগ করেছি। কিন্তু উক্ত বিষয়ের কোনো সমাধান হয়নি। ডিপজল ভাইয়ের ছেলের বিয়েতে জায়েদ খানের সঙ্গে দেখা হলে, এ বিষয়ে সংযত হওয়ার জন্য আমি অনুরোধ করি। এতে সে আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং হঠাৎ পিস্তল বের করে আমাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়।

ওমর সানী আরও লেখেন, আমি মনে করি, এমন একজন পিস্তলধারী সন্ত্রাসী বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সমিতির সদস্য থাকতে পারে না। 

এর পর অভিযোগের বিষয়গুলো বিবেচনায় নিয়ে জায়েদ খানের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানান এ চিত্রনায়ক।