পশ্চিমবঙ্গের অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র যেনো আলোচনায় থাকতে পছন্দ করেন। নানা সময়ে নিজের ব্যক্তিগত বিষয়ে মন্তব্য করে থাকেন খবরের শিরোনামে। প্রায় দেখা যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে  নিজের যাপিত জীবনের নানা বিষয়ে খোলামেলা কথা বলেন। 

গত ২৩ নভেম্বর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সেজেগুজে একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন শ্রীলেখা। সেটার ক্যাপশনে লিখেছিলেন, ‘মেয়ে পছন্দ?’

এই পোস্টের পর থেকেই বিপাকে পড়েছেন ৪৬ বছর বয়সী এই অভিনেত্রী। ইদানিং একের পর এক বিয়ের প্রস্তাব পাচ্ছেন শ্রীলেখা! ফেসবুক মেসেঞ্জারে তাকে বিয়ে করার জন্য বায়না ধরছেন অনেকে। যারা বিয়ের প্রস্তাব দিচ্ছেন তাদের অধিকাংশই তার মেয়ের বয়সী। ১৬ থেকে ২০ বছরের মধ্যে। বিষয়টি নিয়ে মুশকিলে পড়েছেন অভিনেত্রী। 

ওই ঘটনার পর অপর এক স্ট্যাটাসে শ্রীলেখা লিখেছেন, ‘কী মুশকিল মেয়ের বয়েসী ছেলেরা মেসেঞ্জারে বিয়ের প্রস্তাব দিচ্ছে! ওরে মিডিয়াওয়ালারা আমি পাত্র খুঁজছি না। ওটা মজা করেছিলাম, কপাল আমার! ক্ষ্যামা দে আমায়।’

সম্প্রতি বাবা হারিয়েছেন শ্রীলেখা। গত আট বছর ধরে অভিনেত্রী একাই আছেন। একমাত্র মেয়ে আর সিনেমা ঘিরেই বেঁচে থাকা। মেয়ের বয়স এখন ১৬। ২০১৩ সালে শিলাদিত্য সান্যালের সঙ্গে ১০ বছরের দাম্পত্য সম্পর্কে ইতি টানেন শ্রীলেখা। ওই ঘরে শ্রী লেখার

শ্রীলেখা মিত্রের বাবার বাড়ি বাংলাদেশের মাদারীপুরে। চলচ্চিত্র ও টেলিভিশনে অভিনয় করে প্রতিষ্ঠা পেয়েছেন তিনি। ১৯৯৮ সালে কলকাতার ‘হঠাৎ বৃষ্টি’ ছবিতে বাংলাদেশের ফেরদৌসের সঙ্গে অভিনয় করে দৃষ্টি কাড়েন।