জায়েদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, বসছে জরুরি বৈঠক

প্রকাশ: ১৪ জুলাই ২০২০     আপডেট: ১৪ জুলাই ২০২০   

বিনোদন প্রতিবেদক

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়ক জায়েদ খানের বিরুদ্ধে কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠিয়েছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশক সমিতি প্রযোজক সমিতির একজন সদস্য হিসেবে ‘সংগঠনের স্বার্থবিরোধী কর্মকাণ্ডে’ তার জড়িত থাকার অভিযোগ পাওয়া গেছে।  এমন দাবির করে কারণ দর্শানো নোটিশ দিয়েছে  প্রযোজকদের ওই সংঠন। 

সোমবার (১৩ জুলাই) জায়েদ খানকে কারণ দর্শানোর ওই নোটিশ পাঠানো হয় বলে জানান প্রযোজক সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম খসরু । তিনি বলেন, ‘সংগঠনের স্বার্থের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ায়’ সমিতির সংঘবিধি মোতাবেক গত ৭ মার্চ কার্যনির্বাহী পরিষদের ৭ম সভায় তাকে কারণ দর্শানো নোটিশ পাঠানোর সিদ্ধান্ত সর্বসম্মতিক্রমে গৃহিত হয়েছে। 

এ বিষয়ে বিস্তারিত প্রযোজক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম বলেন, ‘চলচ্চিত্র নির্মাণে শৃঙ্খলা আনতে ও নির্মাণ ব্যয় কমিয়ে কাজের গতি বাড়াতে গত বছরের অক্টোবরে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সব সংগঠনের সমন্বয়ে একটি নীতিমালা প্রণয়ন করে। এটি বাস্তবায়ন হলে চলচ্চিত্র নির্মাণে ন্যূনতম ১৫ লাখ টাকা ব্যয় কমে আসবে। বিষয়টি গণমাধ্যমেও প্রকাশ হয় এবং বেশ প্রশংসিত হয় এ উদ্যোগ।

কিন্তু সেই উদ্যোগটি নষ্ট করার চেষ্টা করছেন জায়েদ খান। তার বিরুদ্ধে এ নীতিমালা না মানতে শিল্পীদের ক্ষুদেবার্তা পাঠানোর অভিযোগ উঠেছে। প্রযোজক সমিতির সদস্য হয়েও তার এমন কর্মকাণ্ড প্রযোজক সমিতির স্বার্থের পরিপন্থী। ঘটনার ব্যাখ্যা তার কাছে চাওয়া হয়েছে। আশা করছি তিনি সঠিক ব্যাখ্যা দিয়ে সমিতিকে সন্তুষ্ট করতে পারবেন।’

অন্যথায় কারণ দর্শনো নোটিশের ভিত্তিতে প্রযোজক সমিতি থেকে জায়েদ খানের সদস্যপদ স্থগিত বা বাতিল করা হতে পারে বলেও ধারণা করা হচ্ছে। এ বিষয়ে শামসুল আলম বলেন, এমন কোনো সিদ্ধান্ত এখনো নেয়া হয়নি। জায়েদ খানের ব্যাখ্যা পেয়ে সে অনুযায়ী সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদ এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে।

এদিকে আজ মঙ্গলবার এফডিসিতে এক জরুরি সভা ডেকেছে শিল্পী সমিতি ব্যতীত চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট অন্য সংগঠনগুলো। সেখানে জায়েদ খানের সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ড নিয়ে আলোচনা হবে বলে জানা গেছে।