‌‘নোটিশ পেলে আমার আইনজীবীই উত্তর দেবেন'

প্রকাশ: ২৯ জুন ২০২০     আপডেট: ২৯ জুন ২০২০   

অনিন্দ্য মামুন

‘পাসওয়ার্ড’ ছবির ‘পাগল মন’ গানের দৃশ্যে শাকিব খান ও বুবলী

‘পাসওয়ার্ড’ ছবির ‘পাগল মন’ গানের দৃশ্যে শাকিব খান ও বুবলী

ঢাকাই ছবির জনপ্রিয় নায়ক শাকিব খানের বিরুদ্ধে ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে অভিযোগ করেছেন সংগীতশিল্পী দিলরুবা খান। তার গাওয়া 'পাগল মন’ গানের অংশ বিশেষ অনুমতি ছাড়া শাকিব খানের প্রযোজিত ছবিতে ব্যবহারের অভিযোগ তুলেছেন দিলরুবা।

শাকিব খানের বিরুদ্ধে কপিরাইট আইন অমান্যের অভিযোগ আনা হয়েছে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৩ ধারায় তার বিরুদ্ধে শিল্পী দিলরুবার পক্ষে অভিযোগ দায়ের করেছে ওলোরা আশফাক অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটস। বিষয়টি অন্যান্য গণমাধ্যমসহ সমকাল অনলাইনকেও নিশ্চিত করেছেন দিলরুবা খান।

তার অভিযোগ, শকিব খান প্রযোজিত ও অভিনীত এবং মালেক আফসারি পরিচালিত ‘পাসওয়ার্ড’ ছবিতে দিলরুবা খানের গাওয়া ‘পাগল মন মন রে, মন কেন এত কথা বলে’ গানটির দুই লাইন শিল্পী, গীতিকার কিংবা সুরকারের অনুমতি ছাড়াই ব্যবহার করা হয়েছে। অভিযোগে দেশের মোবাইল ফোন সেবাদাতা একটি প্রতিষ্ঠানের পাঁচ কর্মকর্তার নামও রয়েছে।

দিলরুবা খান বলেন, 'আমার গাওয়া পাগল মন গানটির কথা লিখেছেন আহমেদ কায়সার ও সুরকার আশরাফ উদাস। তিন জনেরই নামেই কপিরাইট করা আছে। কিন্তু শাকিব খানের পাসওয়ার্ড ছবিতে গানটির কিছু অংশ ব্যবহার করার জন্য আমাদের কারও অনুমতি নেননি। তাই আইনজীবীর মাধ্যমে আইনের আশ্রয় নিলাম। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে অভিযোগ করার আগে আমার আইনজীবী শাকিব খান বরাবর একটা আইনি নোটিশ পাঠিয়েছিলেন। সেখানে সমঝোতার কথা বলা ছিল। কিন্তু তিনি কোনো যোগাযোগ করেননি। তাই বাধ্য হয়ে আমরা কপিরাইট আইন ভঙ্গের জন্য ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করছি।’

দিলরুবা খানের অভিযোগের বিষয়টি নিয়ে সোমবার শাকিব খানের সঙ্গে কথা হয়। সমকাল অনলাইনকে শাকিব খান বলেন, 'দিলরুবা খানের অভিযোগ নিয়ে তো আমি তেমন কিছুই জানিনা। যতদূর জানি, গানটির দুটি লাইন ব্যবহারের জন্য মৌখিক অনুমতি নেওয়া হয়েছিল। সিনেমায় আগে ব্যবহৃত যেকোনো গান থেকে দু-এক লাইন নেওয়া নতুন কিছু নয়। আগেও অনেক ছবিতে এরকম দু-এক লাইন নিয়ে নতুন গান তৈরি হয়েছে।’

‘পাগল মন’ গানের দুই লাইন নিয়ে নতুনভাবে সাজানো গানটির সুর ও সংগীত পরিচালনা করেন ভারতীয় সঙ্গীত পরিচালক লিংকন।

আইনি নোটিশ পেলে আইনি প্রক্রিয়াতেই তার উত্তর দেয়া হবে বলে মন্তব্য করেছেন শাকিব খান।  তিনি বলেন, ‘কেউ কোনো অভিযোগ করেছে বলে শুনিনি। আমি সাইবার ইউনিটে অভিযোগের ব্যাপারে এখনো কোনো নোটিশ পাইনি। যদি পাই তাহলে আমার আইনজীবী তার উত্তর দেবেন।