পুরো নাম সাব্বির হোসেন মিশু

প্রকাশ: ১০ অক্টোবর ২০১৯     আপডেট: ১০ অক্টোবর ২০১৯       প্রিন্ট সংস্করণ     

বোরহান আজাদ

মিশু সাব্বির

মিশু সাব্বির। পুরো নাম সাব্বির হোসেন মিশু। ১৮ অক্টোবর ১৯৮৭ সালে ঢাকায় জন্ম নেওয়া এই অভিনেতার ১৪ বছরের দীর্ঘ পথচলা। রেদোয়ান রনি ও ইফতেখার আহমেদ ফাহমির 'হাউজফুল' নাটকের মাধ্যমে প্রথম ক্যামেরার সামনে দাঁড়ান তিনি। এই নাটক দিয়েই যেন দর্শকের মন জয় করে ফেলেন তিনি। নাটক, চলচ্চিত্র, বিজ্ঞাপন প্রায় সব মাধ্যমেই কাজ করেছেন নিয়মিত। এ পর্যন্ত অসংখ্য নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি। তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য নাটকের মধ্যে রয়েছে- 'হাউজফুল', 'হ্যালো', 'দেনমোহর', 'শাটডাউন', 'ভিটামিন টি', 'ব্যাচেলর পয়েন্ট' 'অলটাইম দৌড়ের উপর', 'বিহাইন্ড দ্য সিন', 'ক্যাচ বিহাইন্ড', 'হেই বেবি', 'অভিমানের গল্প', 'প্রেম মহব্বত ভালোবাসা'। যদিও এখন আর ঠিক কতগুলো নাটকে অভিনয় করেছেন তার হিসাব রাখেন না তিনি। বড় পর্দায়ও কাজ করেছেন এই গুণী অভিনেতা। ২০১৭ সালে মুক্তি পাওয়া তানিয়া আহমেদ পরিচালিত 'ভালোবাসা এমনই হয়'- ছবিতে চমৎকার অভিনয় করেন তিনি। একই বছরের ১২ আগস্ট মুক্তি পায় তার অভিনীত দ্বিতীয় চলচ্চিত্র ইফতেখার আহমেদ ফাহমি পরিচালিত 'টু বি কন্টিনিউ'। ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ থেকে টেলিকমিউনিকেশন বিষয়ে বিএসসি ডিগ্রি লাভ করেন তিনি। মিশু সাব্বির ২০১৩ সালে বিয়ে করেন ফার্মাসিস্ট শাম্মাকে। অভিনয় ক্যারিয়ার এবং পরিবার দুটোই একসঙ্গে দারুণভাবে সামাল দেন মিশু সাব্বির। শত ব্যস্ততার মাঝেও পরিবারের সবাইকে নিয়ে ছুটে যান ইটিংআউটে। ঘুরতে বেরিয়ে পড়েন প্রিয় কোনো জায়গায়।

তার কথায়, 'আমার একটা কাজের পর আরেকটা কাজ করতে হয়েছে। কোনো কাজকেই আলাদা করে বলার কিছু নেই। যত দিন গিয়েছে, ভালো ভালো প্রজেক্ট হয়েছে। ধীরে ধীরে আমার গতিও বেড়েছে। তবে প্রথম দিকের কাজের মধ্যে 'হাউজফুল', 'হ্যালো', 'অলটাইম দৌড়ের ওপর' কিংবা 'দেনমোহর' আমাকে শক্তি জুগিয়েছে দীর্ঘ সময় ধরে কাজ করার। দেশের ভালো ভালো পরিচালকের সঙ্গেই কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে।'

ক্যারিয়ারের আজকের অবস্থান নিয়ে মিশু সাব্বিরের মন্তব্য- 'আমি অনেক বছর ধরেই একটি জায়গাতে রয়েছি। এটিই আমার সবচেয়ে বড় অর্জন। শুরু থেকে এ পর্যন্ত যেমন ছিলাম তেমনই আছি। কখনও নাম্বার ওয়ান হওয়ার দৌড়ে ছিলাম না। কখনও উত্থান, কখনও পতন এমনটা আমি চাইনি। আমার নীতি- স্লো অ্যান্ড স্টেডি। তবে আমি সন্তুষ্ট এতটা বছর পর নিজেকে যে অবস্থানে নিতে চেয়েছি ঠিক সেই অবস্থানেই রয়েছি।'

বর্তমান নাটকে ভাষা ব্যবহার নিয়ে অনেকেই আপত্তি তোলেন। তরুণ প্রজন্ম পছন্দ করলেও অনেক দর্শক অভিযোগ করেন বাংলা নাটকে অশ্নীল ডায়ালগের ব্যবহার হচ্ছে। এর জবাবে মিশু সাব্বিরের ভাষ্য- 'ওয়ার্ল্ড ট্রেন্ডটা বুঝতে হবে। দুনিয়া এগিয়ে যাবে নিজের মতোই। হলিউড কিংবা বলিউড সবখানেই অনেক আগে থেকেই এসব চলে আসছে। তবে আমি চেষ্টা করি যতটুকু পারি এড়িয়ে চলতে। এই যেমন ব্যাচেলর পয়েন্টের কথাই ধরুন। যেটুকু অভিযোগ হয় এর কয়েক গুণ বেশি অশ্নীল সংলাপ ছিল স্ট্ক্রিপ্টে। আমি নিজে এর প্রতিবাদ করে যতটা সম্ভব চেষ্টা করেছি দর্শক উপযোগী করার। তবে দর্শক চাহিদাও দেখতে হয় পরিচালকদের। আসলে সময়ের সঙ্গে অনেক কিছুই বদলায়। বদলায় সংলাপও।'

টিভি নাটক কিংবা টিভিসি যেখানেই কাজ করেছেন পেয়েছেন সাফল্যের দেখা। তার নিজস্ব একটা ভঙ্গি দর্শকের মনে তাকে নিয়ে গেছে অন্য অবস্থানে। মিডিয়ার এই আঁকাবাঁকা সড়কে নিজের গতি নিয়ন্ত্রণে রেখে এগিয়ে যাচ্ছেন নিজের মতো। সামনের দিনগুলোয় যেন নিজেকে ছাড়িয়ে যান আরও। লাখো ভক্তের ভালোবাসায় সিক্ত হোক তার প্রতিটি দিন। আগামী ১৮ অক্টোবর প্রিয় এই অভিনেতার জন্মদিন। এমন শুভক্ষণে লাখো ভক্তের ভালোবাসায় ভরে উঠুক তার ভুবন।