‘মিডিয়ায় গ্রুপিং চলছে, এরা নিজেরাই নিজেদের কাজের প্রশংসা ছড়ায়’

প্রকাশ: ২৮ আগস্ট ২০১৯      

বিনোদন প্রতিবেদক

ফজলুর রহমান বাবু। অভিনেতা ও মডেল। এনটিভিতে প্রচার হচ্ছে তার অভিনীত ধারাবাহিক নাটক 'সোনার খাঁচা'। এ ধারাবাহিক ও অন্যান্য প্রসঙ্গে কথা হলো তার সঙ্গে-

'সোনার খাঁচা' নিয়ে দর্শক প্রতিক্রিয়া কেমন?

দর্শক প্রতিক্রিয়া এখন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বেশি পাওয়া যায়। এ মাধ্যমে নিয়মিত না হওয়ায় সেভাবে প্রতিক্রিয়া জানার সুযোগ হয় না। তবে ওই নাটকে কাজ করে বেশ আনন্দ পেয়েছি। নির্মাতা সাগর জাহানের নির্মাণ দারুণ ছিল। এখানে আমি অভিনয় করেছি 'রহমান' চরিত্রে। যারা নাটকটি দেখেছেন, ভালোই বলেছেন। নাটকে গ্রামীণ রাজনীতি ফুটিয়ে তোলা হয়েছে।

এখনকার নাটকে গ্রামীণ চিত্র কতটুকু উঠে আসে বলে আপনার মনে হয়?

এটা নির্ভর করে নাট্যকারের ওপর। ভালো নাট্যকারের নাটক হলে গ্রামীণ পটভূমি যথাযথভাবে নাটকে অবশ্যই উঠে আসে। গ্রামীণ নাটক মানেই দর্শক হাসানো নয়। গ্রামকে অনেকভাবেই ফুটিয়ে তোলা যায়। নাটকে অবশ্যই গ্রামীণ জীবনযাপন, মানুষের সুখ-দুঃখ, আনন্দ-বেদনার কথাও আসতে হবে।

'পাপ-পুণ্য' সিনেমায় অভিনয় করতে যাচ্ছেন। এখানে আপনার চরিত্রটি কী রকম?

ছবিতে আমাকে দেখা যাবে একজন পুলিশ অফিসারের চরিত্রে। এর বেশি কিছু আর বলতে চাই না। ছবির শুটিং শুরু হলেও এখনও শুটিংয়ে অংশ নিইনি। আগামী ৩১ আগস্ট ক্যামেরার সামনে দাঁড়াব।

মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে 'মায়াবতী'। এটি নিয়ে কেমন আশাবাদী?

বেশ আশাবাদী। এতে আমি একজন সঙ্গীতপাগল মানুষের চরিত্রে অভিনয় করেছি। মানুষটি সারক্ষণ শুধু গান করে। সংসারে মন নেই। গল্পের কেন্দ্রীয় চরিত্র এটি। আশা করছি, চরিত্রটি দর্শকের ভালো লাগবে।

শুনেছি নতুন একটি ছবিতে কাজ শুরু করেছেন?

হ্যাঁ, সৈয়বুর রহমান রাসেলের পরিচালনায় চলচ্চিত্র 'নন্দিনী'তে কাজ করছি। বর্তমানে এর শুটিং চলছে উত্তরায়। ছবির গল্প অসাধারণ।

কাজের সমালোচনাকে আপনি কীভাবে দেখেন?

যদি যথাযথ সমালোচনা হয়, আমি সেটাকে ইতিবাচকভাবেই দেখি। সমালোচনা একজন শিল্পীকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যায়। আমাদের এখানে সমালোচনা হয়, তবে ইতিবাচক নয়। মিডিয়ায় বর্তমানে অনেক গ্রুপ তৈরি হয়েছে। তাদের অনেকে নিজেদের কাজ নিয়ে নিজেরা খুব প্রশংসা করে। অন্যের কাজ ভালো হলেও সেটার খুঁত বের করে। এতে মিডিয়ার ওপর খারাপ প্রভাব পড়ে।